`দেশের জন্য শিক্ষার্থীদেরকে গড়ে তুলতে হবে`


Published: 2019-03-28 21:35:02 BdST, Updated: 2019-09-15 13:42:09 BdST

সিলেট লাইভঃ দেশবরেণ্য চিকিৎসক, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত বলেছেন, শিক্ষার্থীরা দেশের জাতীয় সম্পদ। তাদের হাত ধরেই ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। তাদেরকে সুষ্টুভাবে গড়ে তুলার মাধ্যমে সেই কাজটি করতে হবে।

অপ্রাপ্ত বয়সে মোবাইল ফোনের কু-ব্যবহার তাদেরকে বিপদগামী করে ফেলে। তাদের চিন্তা-চেতনা নেতিবাচক ধারায় প্রবাহিত হয়। পাশাপাশি ধূমপান ও মাদক সেবনের প্রতি আগ্রহী হয়ে পড়ে। এমতাবস্থায় শিক্ষার্থীদেরকে সচেতন হওয়া ছাড়াও অভিভাবকদেরও যথাযথ খেয়াল নিতে হবে।

সিলেটের ঐতিহ্যবাহী মুরারি চাঁদ কলেজ, সিলেট-এর উদ্যোগে ‘মোবাইল, মাদক ও ধূমপানের কুপ্রভাব: তরুণ সমাজের করণীয়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে কলেজ অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন কলেজ অধ্যক্ষ বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর নিতাই চন্দ্র চন্দ। সভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মতবিনিময় সভা আয়োজক কমিটির আহবায়ক ও ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর মো. শফিউল আলম।

উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শাহনাজ বেগমের সঞ্চালনায় সভা প্রধান অতিথির পরিচিতি তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন কলেজ উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মো. সালেহ আহমদ। সভায় ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বক্তব্য রাখেন কলেজ শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক মো. তোতিউর রহমান এবং সরকারি বিজ্ঞান কলেজ, ঢাকা-এর অধ্যক্ষ প্রফেসর বনমালী ভট্টাচার্য।

সভায় কলেজের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং সাধারণ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। সভায় প্রধান অতিথি প্রফেসর ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত ‘মোবাইল, মাদক ও ধূমপানের কুপ্রভাব: তরুণ সমাজের করণীয়’ সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি। বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে প্রফেসর ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত বলেন, ১৬ বছরের আগে শিক্ষার্থীদের হাতে কোনো ভাবেই মোবাইল ফোন দেওয়া যাবে না।

অপ্রাপ্ত বয়সে মোবাইল ফোন ব্যবহার তাদের মেধা ও চিন্তা-শক্তিকে নষ্ট করে ফেলে। অনেক সময় মোবাইলের অপব্যবহারে নষ্ট হয়ে যায় তাদের সম্ভাবনাময় ভবিষ্যৎ। বিভিন্ন অন্যায় এবং অসৎ কাজে জড়িত হয়ে নৈতিক মূল্যবোধকে বিসর্জন দেয়।

এ থেকে পরিত্রাণের জন্য শিশুদের হাতে মোবাইল ফোন দেওয়া থেকে বিরত থাকার জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহবান তিনি। এছাড়া মাদকের ফলে চিন্তা-শক্তি দূর্বল হয়ে পড়ে, বিধায় ভবিষ্যতের জন্য দেশের যে সৃজনশীল মানুষের প্রয়োজন সেটা পূরণ হয় না। মাদক সেবনের ফলে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন অন্যায় কাজে জড়িত হওয়ার ফলে দেশের মধ্যে সৃষ্টি হয় অস্থির অবস্থা।

প্রধান অতিথি ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত ধূমপান থেকে বিরত থাকার জন্য নিজেদেরকে সচেতন থাকা এবং অভিভাবকদের প্রতিও আহবান জানান। তিনি উল্লেখ করেন, একটি আধুনিক ও সমৃদ্ধশালী রাষ্ট্র গড়ে তুলতে শিক্ষার্থীদেরকে আদর্শিক মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। এজন্য মোবাইল ফোনের সদ্ব্যবহার, মাদত ও ধূমপান থেকে শিক্ষার্থীদেরকে দূরে রাখতে হবে।

সভার শেষে প্রধান অতিথি প্রফেসর ডা. প্রাণ গোপাল দত্তকে অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ এবং শিক্ষক পরিষদের পক্ষ থেকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এছাড়া কলেজ শিক্ষক পরিষদ এবং কলেজ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে প্রধান অতিথি প্রফেসর ডা. প্রাণ গোপাল দত্তকে ফুলের শুভেচ্ছায় সিক্ত করা হয়।

ঢাকা, ২৮ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।