চবিতে বৈধ আসনের দাবিতে শিক্ষার্থীদের অবস্থান কর্মসূচি


Published: 2019-10-02 18:36:48 BdST, Updated: 2019-10-22 19:26:06 BdST

চবি প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে(চবি) সন্ত্রাসী হামলা করে বিভিন্ন হল থেকে বৈধ শিক্ষার্থীদের বের করে দেওয়ার প্রতিবাদে এবং আসন ফিরে পাওয়ার দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে হলগুলো থেকে বিতাড়িত বৈধ আসন প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা।

বুধবার দুপুর ১ টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে তারা। এতে চবি সোহরাওয়ার্দী, আলাওল ও এফ রহমান হলের বৈধ আসন প্রাপ্ত শীক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

আন্দোলনকারীরা জানান,গত ১ সেপ্টেম্বর সোহরাওয়ার্দী, আলাওল ও এফ রহমান হলে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে রুম ভাঙচুর এবং হলে আসন বরাদ্দপ্রাপ্ত বৈধ শিক্ষার্থীদেরকে তাদের রুম থেকে বের করে দেয় জামায়াত-শিবিরের সন্ত্রাসীরা।এসময় তিনটি হল মিলিয়ে অন্তত ১৪০ জনের মতো বৈধ আসনধারী শিক্ষার্থীকে বের করে দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থী রিয়াজুল ইসলাম মাহবুব বলেন, বিগত ১ সেপ্টেম্বর সোহরাওয়ার্দী, আলাওল, এবং এফ রহমান হলে সন্ত্রাসীরা বৈধ শিক্ষার্থীদের রুম ভাঙচুর করে শিক্ষার্থীদের বের করে দেয়।

এ ব্যাপারে আমরা প্রশাসনের কাছে ব্যাবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানালেও প্রশাসন কোনো ব্যাবস্থা গ্রহণ করে নি। তাই আমরা আন্দোলনে নামতে বাধ্য হয়েছি। আমাদের দাবি মেনে না নেয়া পর্যন্ত আমরা আমাদের আন্দোলন চালিয়ে যাব।

লোক প্রশাসন বিভাগের ২০১৪-১৫ সেশন ও এফ রহমান হলের ২০৫ নাম্বার কক্ষের বৈধ শিক্ষার্থী সৈকত বলেন, জামায়াত শিবিরের সন্ত্রাসীরা আমাদের হলে হামলা চালিয়ে আমি সহ আরো অনেক বৈধ শিক্ষার্থীকে মারধর করে হল থেকে বের করে দিয়ে কক্ষগুলো দখল করে নেয়। এ ব্যাপারে আমরা বারবার প্রশাসনের দ্বারস্থ হলেও তাঁরা কোনো পদক্ষেপ নেন নি।

এসময় প্রশাসন ব্যাবস্থা না নিলে তাঁদের আন্দোলন অনশনের দিকে যাবে বলেও হুশিয়ারি দেন তিনি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর রেজাউল করিমের সাথে কথা বললে তিনি জানান, তারা একটা লিস্ট দিয়েছে। আমরা সেটা যাচাই বাছাই করে দেখছি। তারপর আমরা একটা সিদ্ধান্ত নেব।

ঢাকা, ০২ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।