আবরার হত্যার বিচার নিয়ে সরব চবি শিক্ষার্থীরা


Published: 2019-10-08 19:25:44 BdST, Updated: 2019-10-22 19:52:56 BdST

চবি লাইভঃ বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদের নির্মম হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবিতে রাজপথে সরব ভূমিকা পালন করছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার বিকেল ৪ টায় নগরীর ষোলো শহর স্টেশনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা এক মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী আমিনুল ইসলাম জুয়েল বলেন, অনেক আগে থেকেই রাজনৈতিক শেল্টারের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সাধারণ ছাত্রদের নির্যাতন করা হচ্ছে। আবরার ফাহাদ হত্যা তার একটি নমুনা। এর সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার করা না হলে ছাত্রসমাজকে দমিয়ে রাখা যাবে না।

শিক্ষা ও গবেষণা বিভাগের শিক্ষার্থী কামরুন নাহার বলেন,মুক্ত বাক চর্চার প্রধান কেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু সেখানে একটি স্ট্যাটাসের জন্য হত্যা চরম হিংস্রতার প্রমাণ দেয়। অবিলম্বে খুনীদের বিচারের আওতায় আনতে হবে।

এসময় অন্যান্য বক্তারা আরো বলেন,ভারতীয় এজেন্টরা আমাদের স্বাধীনতা কে লুট করে নিয়ে যাচ্ছে। তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গিয়ে জীবন দিয়েছে আবরার। কিন্তু এভাবে জীবন নিয়ে ছাত্রসমাজকে চুপ করে রাখা যাবেনা। দেশের বিরোধী কোন ষড়যন্ত্র হলে ছাত্রসমাজ তার সবকিছু দিয়ে প্রতিবাদ করবে।

শিক্ষার্থীরা বুয়েটের দেওয়া আট দফা দাবীর সাথে একাত্বতা প্রকাশ করেন এবং নিজেরাও পাঁচ দফা দাবি জানান। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।

পাঁচ দফা দাবি:
১. সকল অপরাধীকে সনাক্ত করে তাদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিতকরণ।
২. অপরাধীদের বুয়েট থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করতে হবে।
৩. গতবছরের অক্টোবর ঘটনা সহ পূর্বের সকল ঘটনার তদন্ত করতে হবে।
৪. ৭২ ঘন্টার মধ্যে দোষীদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে হবে।
৫. আবরার হত্যার ও তার পরিবারের সমস্ত ব্যয় বুয়েটের প্রশাসনকে বহন করতে হবে।

প্রসঙ্গত এর আগেও গতকাল বিক্ষোভ মিছিল এবং আজকে বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

ঢাকা, ৮ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।