অনলাইনে ক্লাস করতে অসুবিধা: যা ভাবছেন নোবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা


Published: 2020-06-25 15:50:49 BdST, Updated: 2020-08-14 15:16:06 BdST

সাজিদ আহমেদ, নোবিপ্রবিঃ করোনাভাইরাসের বেড়াজালে বর্তমানে সারা বিশ্ব এক মহাক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। মানবজীবনের প্রতিটি ক্ষেত্র- ব্যবসা, অর্থনীতি, শিক্ষা, যোগাযোগ করোনার মারাত্মক প্রভাবে প্রভাবিত। মানুষ এক অনিশ্চয়তার মধ্যে দৈনন্দিন জীবন অতিবাহিত করছেন।

‘করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বন্ধ থাকতে পারে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমন ইঙ্গিত দিয়েছে সরকার। এমতাবস্থার মধ্যেও টিকে থাকার স্বার্থে পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ইতোমধ্যে ইউজিসি ও শিক্ষা মন্ত্রাণলয় থেকে দেশের সব সরকারী ও বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে ক্লাস নেয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়েছে।

কিন্তু সিদ্ধান্তটা কি আসলেই সময় উপযোগী? সবার পক্ষে কি এটা সম্ভব? এমন সিদ্ধান্তের ব্যাপারে কী ভাবছেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা? কয়েকজন শিক্ষার্থীর মতামত তুলে ধরা হলো,

মুশফিকুর রহমান খান, অনুজীববিজ্ঞান বিভাগঃ

সর্বোত্তম সম্ভাব্য উত্তরটি হল, শিক্ষদের ক্লাস লেকচার এর ভিডিও আপলোড করা উচিত। ভিডিওর কিছু নির্দিষ্ট অংশ না বোঝার বিষয়ে সম্ভাব্য অশান্তি হতে পারে। তবে আমরা যদি অনলাইন ক্লাস না করি তবে আমরা সেশন জ্যাম পেতে পারি।

জাবেদ আদনান, শিক্ষা প্রশাসন বিভাগ:

শিক্ষা প্রশাসন ডিপ্ট থেকে আমাদের রাকিব স্যার বলেছেন যাদের ডাটা কেনায় সমস্যা উনি সবাইকে ডাটা কিনে দিবেন। এরপরেও যাতে অনলাইন ক্লাস করে। কিন্তু ডাটা কিনলেই তো হবে না, অনেকেই বাসায় নেটওয়ার্ক পায় না, বাইরে গিয়ে ক্লাস করতে হয়। অনেকে নিজের বাড়ির মধ্যেও নেট পায় না। যেই সমস্যা স্যার ও ঠিক করতে পারবে না, আর আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ও।

স্যারের এই আন্তরিকতাকে আমি সবার পক্ষ থেকে সম্মান ও সাধুবাদ জানাই কিন্তু বাকিটা কি করবেন?আবার সেশন জট ও একটা বড় সমস্যা। সব কিছুই চিন্তা করতে হবে।

শেখ আমীর হামজা, বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি:

সমস্যা কম বেশি সবার ই আছে। আমারও আছে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে কবে ক্যাম্পাস খুলবে তাও অনিশ্চিত। বেশিরভাগ ভার্সিটিতেই অনলাইনে ক্লাস হচ্ছে, বলতে গেলে সব গুলোতেই সেক্ষেত্রে যদি আমাদের অনলাইনে ক্লাস না হয় তাহলে ওদের থেকে আমরা পিছিয়ে পড়ব।

নেট প্রব্লেম কম বেশি সবার ই হয়। সে ক্ষেত্রে যদি স্যার রা পিডিএফ দিত টপিকের বা বই এর রেফারেন্স, চ্যাপ্টারের নাম, তাহলে হয়তো যাদের বেশি নেট প্রব্লেম তাদের সবারই উপকার হত।

আবদুল্লাহ আল মামুন, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগ:

নেট সমস্যাটাই মূল সমস্যা। একটা ক্লাসেও ঠিক মত নেট পাইনি। এতে করে শিখার চেয়ে আমাদের চাপটাই বাড়তেছে। তার পাশাপাশি অনেকের পক্ষেই এই মহামারির সময়ে প্রতিদিন ২-৩ টা ক্লাস করা অনেক প্রেশার হয়ে যাচ্ছে, তার উপর এক-তৃতীয়াংশ ক্লাস করার সুযোগই পাচ্ছেনা, যা বৈষম্যের তৈরী করতেছে শিক্ষার ক্ষেত্রে।

আব্দুল আওয়াল রাহাত,সমাজবিজ্ঞান বিভাগ:

আমাদের অধিকাংশ সহপাঠীর সমস্যার কথা চিন্তা করে শ্রদ্ধেয় স্যার মহোদয়গণ স্থগিত করেছেন। এইক্ষেত্রে আমাদের সবারই ব্যক্তিগত সমস্যার কথা স্যারের কাছে পাঠানো হয়েছে। অনলাইনে ক্লাস নিতে গিয়ে বেশ কয়েকটা কারণ বেরিয়ে আসছে। তার কয়েকটা কারণ আমি উল্লেখ করলাম এখানে।

১/ করোনা ক্রাইসিসের সময় পারিবারিক অনেক ছাত্রের অর্থনৈতিক সমস্যা দেখা দিয়েছে এই অবস্থায় তাদের পক্ষে এমবি (মেগাবাইট) কিনে ক্লাস করা এক অসম্ভব ব্যাপার।

২/অনেকেই নেটওয়ার্ক এর বাহিরে থাকায় এখনো আমাদের কয়েকটা সহপাঠীর সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি তারা কি অবস্থায় আছে সেটাও জানা যাচ্ছেনা। অনেকেই অনলাইন ক্লাস বলে কিছু চালু হচ্ছে এটা সম্পর্কে তারা অবগত না।

৩/ অধিকাংশ ছাত্রছাত্রী গ্রামে থাকায় লো-নেটওয়ার্ক এর জন্য অনলাইনে আসতে পারছেনা।
৪/ অনেক ছাত্রছাত্রীর পরিবার করোনা ভাইরাস দ্বারা এফেক্টেড। এই ক্রাইসিস সময়ে তারা ক্লাস করার মত মানসিকভাবে প্রস্তুত না।

৫/ অনেকের প্রতিবেশী করোনা ভাইরাস দ্বারা এফেক্টেট হওয়ায় তারা খুবই আতংক ও ভয়ে দিক কাটাচ্ছে এমতাবস্থায় তাদের অনলাইন ক্লাসে মনোযোগী হতে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।
৬/অনেক সহপাঠী পার্বত্য চট্টগ্রামে থাকায় তাদের নেটওয়ার্ক সমস্যার পাশাপাশি অর্থনৈতিক ক্রাইসিস,এম্বি কিনা আর ইজিলোড ব্যবস্থা তত উন্নত না হওয়ায় তারা অনলাইনে ক্লাস করতে আগ্রহী না।

৭/আমাদের সহপাঠীর মধ্যে অনেকেই খুবই সস্তা মূল্যের ফোন ব্যবহার করে এইগুলা দিয়ে কোনভাবে কথা বলা যায়, তা দিয়ে অনলাইন ক্লাস করার মত কিছু মাথায় আনা বিলাসিতা ছাড়া আর কিছুই না।

ঢাকা, ২৫ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।