সকাল: “আমি আর সইতে পারি না, সব কিছুই বলে দেব”


Published: 2019-10-10 21:02:41 BdST, Updated: 2019-10-20 22:55:02 BdST

লাইভ প্রতিবেদকঃ বিবেকের তাড়নায় আমি সব কিছুই বলতে চাই। তিনি আদালতকে জানান আমি আর সইতে পারি না। সব কিছুই বলে দেব। আমাদের ছাত্রলীগের ছেলেরাই বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বীকে পিটিয়ে হত্যা করেছি বলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন বুয়েট ছাত্রলীগের উপ-সমাজকল্যাণ সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াসির আহসান চৌধুরীর আদালতে তিনি জবানবন্দি প্রদান করেন। জবানবন্দি রেকর্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

জানাগেছে সকালসহ ছাত্রলীগের ১০ নেতাকর্মী পাঁচদিনের রিমান্ডে ছিলেন। রিমান্ডে থাকা অবস্থায়ই সকাল পুলিশের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন তিনি।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক ওয়াহিদুজ্জামান তাকে আদালতে হাজির করে জবানবন্দি রেকর্ডের আবেদন করেন। বিচারক তার জবানবন্দি গ্রহণ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

প্রসঙ্গত, গত রোববার রাত ৩টার দিকে বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

জানা যায়, ওই রাতেই হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা। ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক জানিয়েছেন, তার মরদেহে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এ ব্যাপারে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ১৯ জনকে আসামি করে সোমবার সন্ধ্যার পর চকবাজার থানায় একটি হত্যা মামলা করেন নিহত আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ্। এ ঘটনায় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ কয়েকজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মামলাটির তদন্ত চলছে।

ঢাকা, ১০ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।