তিতাস রেলক্রসিং এ পুলিশ বক্স, স্বস্তিতে ডুয়েট শিক্ষার্থীরা


Published: 2019-11-11 21:00:04 BdST, Updated: 2019-12-08 06:28:34 BdST

ডুয়েট লাইভঃ ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট), গাজীপুর হতে এক কিলোমিটার দূরে পশ্চিম ভুরুলিয়ার তিতাস রেলক্রসিংয়ে স্থায়ী পুলিশ বক্স নির্মাণ করছে প্রশাসন। ডুয়েট শিক্ষার্থীদের অনড় দাবীর মুখে ডুয়েট প্রশাসন ও শাখা ছাত্রলীগের প্রচেষ্টায় অবশেষে নির্মিত হচ্ছে স্থায়ী পুলিশ বক্স।

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির কারনে দীর্ঘদিনযাবৎ গাজীপুর ২৫ নং ওয়ার্ডের মানুষের কাছে ঝুঁকির একটি বড় কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল জয়দেবপুর-শিমুলতলী রোড
(বিআইডিসি রোড) রেল ক্রসিং। এই রেলক্রসিং ও তৎসংলগ্ন রেললাইনে দীর্ঘদিন যাবৎ মাদকসেবী, ছিনতাইকারীরা প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছিলো।

তারা বিভিন্ন সময় অনেক ছাত্র, কর্মজীবী ও অন্যান্য শ্রেণীপেশার মানুষেকে অস্ত্রের মুখে রেখে ছিনতাই ও জখম করার ঘটনাও ঘটিয়েছে।

শিক্ষার্থীদের তথ্যানুসারে জানা যায় উল্লেখ্য ,গত ১ অক্টোবর ডুয়েটের কেমিক্যাল অ্যান্ড ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ৩য় বর্ষের ছাত্র কাওছার আলম জয়দেবপুর স্টেশনে যাওয়ার সময় ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে ছুরিকাঘাতে মারাত্মক আহত হন। তাকে উদ্ধার করে ডুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি তাইবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক বিনয় ব্যানার্জি গাজীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

পরে ডুয়েট প্রশাসন ও ছাত্রলীগের সাহায্যে স্থায়ী পুলিশ বক্স ও সিসিটিভি
স্থাপন করার জন্য গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আনোয়ার হোসেনের কাছে
লিখিত আবেদন করেন কাউসার আলম। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতেই নির্মিত হচ্ছে
স্থায়ী পুলিশ বক্স।

ডুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক প্রফেসর ড. নজরুল ইসলাম বলেন, তিতাস রেলক্রসিংয়ে পুলিশ বক্স শিক্ষার্থীদের দীর্ঘদিনের দাবি ছিলো। এ সময় গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ ও ডুয়েট ছাত্রলীগকে তিনি ধন্যবাদ জানান।

ডুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি তাইবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক বিনয় ব্যানার্জি
জানান, দাবি বাস্তবায়ন হওয়ায় ডুয়েট ছাত্রলীগ আনন্দিত। তারা গাজীপুর
মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আনোয়ার হোসেন ও ডুয়েট প্রশাসনকে কৃতজ্ঞতা
জানান।

ঢাকা, ১১ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।