ঢাবির গণরুম-গেস্টরুমে নির্যাতনের স্থিরচিত্র প্রদর্শনী


Published: 2019-11-17 12:48:57 BdST, Updated: 2019-12-09 19:35:51 BdST

ঢাবি লাইভ: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ‘গণরুম-গেস্টরুম ও সন্ত্রাসবিরোধী’ ৪ দিনব্যাপী স্থির চিত্র প্রদর্শনী আয়োজন করা হয়েছে। ‘বৈধ সিট আমার অধিকার’ মঞ্চের আয়োজনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনের সামনে রবিবার সকাল ১০টায় প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়।

১ম বর্ষ হতেই প্রশাসন কর্তৃক বৈধ সিট বরাদ্দ এবং গেস্টরুম নামক টর্চারসেল বাতিলসহ ৬ দফা দাবিতে ধারাবাহিক আন্দোলন শুরু করেছে বলে জানান মঞ্চের নেতারা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সবচেয়ে বড় সমস্যা আবাসিক হলগুলোতে রাজনৈতিক দখলদারিত্ব।

এই দখলদারিত্বের রাজনীতিকে প্রশ্রয় দেয়ার জন্য প্রশাসন এবং ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনগুলো যুগ যুগ ধরে সিট দখল ও সিট বাণিজ্য করে আসছে যা ১ম বর্ষ থেকে বৈধ সিট পাওয়ার পথে সব থেকে বড় বাঁধা। গণরুম-গেস্টরুম নির্যাতন থেকে শিক্ষার্থীদের মুক্ত করাই আমাদের লক্ষ্য। বৈধ সিট আমার অধিকার’ মঞ্চের মুখপাত্র আরমানুল হক ‘গণরুম-গেস্টরুম ও সন্ত্রাসবিরোধী’ স্থিরচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনীতে এসব কথা বলেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণরুম-গেস্টরুমে নির্যাতনের স্থিরচিত্র

 

মঞ্চের আরেক সদস্য (প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী) উমামা ফাতেমা ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, বিভিন্ন সরকারের আমলে ক্যাম্পাসের ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনগুলো এই সিট দখল ও সিট বাণিজ্য ব্যবহার করে কার্যত ১ম বর্ষের নবাগত শিক্ষার্থীদের জিম্মি করে নিজেদের সন্ত্রাসী রাজনীতির জ্বালানী হিসেবে ব্যবহার করে আসছে। আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ‘বৈধ সিট আমার অধিকার’ মঞ্চের মাধ্যমে একত্রিত হয়ে এই দখলদারিত্বের রাজনীতির বিরুদ্ধে ক্যাম্পাসে সরব আছি।

এই আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় শিক্ষার্থীদের সচেতন করতে ‘গণরুম-গেস্টরুম ও সন্ত্রাসবিরোধী’ ৪ দিনব্যাপী স্থির চিত্র প্রদর্শনী কর্মসূচি শুরু করেন তারা। উক্ত প্রদর্শনী একই স্থানে ১৬ নভেম্বর থেকে ১৯ নভেম্বর প্রতিদিন সকাল ১০টায় থেকে বেলা ২টায় পর্যন্ত চলবে। মঞ্চের ৬ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে- ১ম বর্ষ হতেই প্রশাসন কর্তৃক বৈধ সিট বরাদ্দ করা, গেস্টরুম নামক টর্চারসেল বাতিল, সিট বরাদ্দে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ চলবে না, অবৈধভাবে সিট দখলকারীদের অবিলম্বে হল ত্যাগ করতে হবে, পলিটিক্যাল গণরুম বাতিল কর।

‘গণরুম-গেস্টরুম ও সন্ত্রাসবিরোধী’ স্থিরচিত্র প্রদর্শনীতে সংহতি জানিয়ে উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর ড. মোহাম্মদ তানজিমউদ্দিন খান ও ড. মো. আব্দুল মান্নান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর রেহনুমা আহমেদ। বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাহিদ সুজনসহ প্রমুখ।

ঢাকা, ১৭ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।