"দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত হাসপাতালে যাব না"


Published: 2020-01-18 00:17:38 BdST, Updated: 2020-02-29 05:27:26 BdST

ঢাবি লাইভ : আমাদের দুইজন শিক্ষার্থী হাসপাতালে আছেন। আমি হাসপাতালে যাব না। যতক্ষণ পর্যন্ত আমাদের দাবি আদায় না হবে আমি এখানেই থাকব, আমি হাসপাতালে যাব না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনশনরত জগন্নাথ হলের জিএস কাজল দাস অসুস্থ হওয়া সত্ত্বেও হাসপাতালে কেন যাচ্ছেন না জানতে চাইলে ক্যাম্পাসলাইভ২৪ কে তিনি এভাবে বলেন।

সকালে কাজল দাস অসুস্থ হয়ে পড়লে ডাক্তার এসে স্যালাইন দিয়ে যায়। পূজার দিনে দুই সিটি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে আমরণ অনশনে বসেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য এ অনশন শুরু হয়।

অনশনের সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে জগন্নাথ হল সংসদের ভিপি উৎপল বিশ্বাস ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, আমাদের চার-পাঁচজন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়েছেন। আগেও অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় দুইজনকে হাসপাতালে পাঠিয়েছি। আর কেউ যদি হাসপাতালে যেতে চায় তাদেরকে পাঠানো হবে। সব ধর্মের শিক্ষার্থীরা এখানে এসে আমাদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছে তাই তাদেরকে ধন্যবাদ জানায়।

তিনি আরো বলেন, এখানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের জন্য অহিংস আন্দোলন করে যাচ্ছে। নির্বাচন কমিশন একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান। সাংবিধানিক প্রত্যেকটি প্রতিষ্ঠানের প্রতি আমাদের শ্রদ্ধা রয়েছে। হাইকোর্টের প্রতি আমাদের শ্রদ্ধ রয়েছে। আমাদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করতে এসে কেউ এমন মন্তব্য করবেন না যাতে সাম্প্রদায়িক উষ্কানি সৃষ্টি হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী শিতি মজুমদার ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, নির্বাচন কমিশনের সচিব বলেছেন নির্বাচনের দিন শিক্ষা প্রতিষ্টানগুলোতে নির্বাচন ও পূজা একই সাথে অনুষ্ঠিত হবে। ওনার কাছে প্রশ্ন রাখতে চায় একই সাথে নির্বাচন ও পূজা কীভাবে করা যায়।

ঢাকা, ১৭ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।