একদল অসচ্ছল ভর্তিচ্ছুর স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখছেন রাবি ছাত্র আরেফিন


Published: 2019-07-04 14:41:21 BdST, Updated: 2019-12-07 02:49:17 BdST

রাশেদ রাজন: মেধাবী ছাত্রী শিরিন আক্তার, রাজশাহী সরকারি মহিলা কলেজ থেকে এবার এইচ এস সি পরিক্ষা দিয়েছেন। দরিদ্র পরিবারের সন্তান হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরিক্ষা দেয়ার স্বপ্নটা অনেকটাই মলিন হতে যাচ্ছিল। আর্থিক অনটন, শিরিনের বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি কোচিং করার প্রচেষ্টাকে পেছন টেনে ধরলেও, উদার মানসিকতার একজন রাবিয়ান সেই স্বপ্নকে বাচিঁয়ে রাখতে এগিয়ে আসেন অভিভাবক বেশে।

শিরিনের মত লালমনির হাটের অজপাড়া গাঁয়ের একজন মেধাবী শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম। যার ভেঙ্গে চুরমার হতে যাওয়া স্বপ্নকে জোড়া লাগাতেও এগিয়ে আসেন তিনি।

আরিফুল বলেন, ‘কোচিং করবো সেই পরিস্থিতি আমার নাই। আমার এলাকায় কোথাও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি কোচিং কিংবা প্রাইভেট পড়ার সুযোগ ছিলনা। আমি ভেঙ্গে পড়ছিলাম। আমার বাবার অত টাকা নাই যে রাজশাহী বা ঢাকার কোন কোচিংয়ে পড়াবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ার স্বপ্নটা নস্যাৎ হতে চলছিল। কিন্তু হঠাৎ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ভাইয়ের কাছ থেকে জানতে পারি সেখানকার একজন বড় ভাই দরিদ্র-মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য ফ্রিতে ভর্তি প্রাইভেট পড়াচ্ছেন। পরবর্তীতে ভাইয়ের সাথে দেখা করলে তিনি আমাকে নিতে রাজি হন।’

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু দরিদ্র-মেধাবী শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে প্রাইভেট পড়ানোর বিষয়ে সরাসরি কথা হয় সেই উদ্যোক্তার সাথে। তিনি রাবির হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগের ছাত্র (২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষ) আরেফিন মেহেদি হাসান।

কোন অনুপ্রেরণা থেকে এই উদ্যোগ, সে বিষয়ে কথা হয় আরেফিনের সাথে। তিনি বলেন, ‘আমাদের এই সমাজের মধ্যে অনেক দরিদ্র-মেধাবী শিক্ষার্থী আছে। যারা আর্থিক সংকটের কারণে ভাল কোন পর্যায়ে যেতে পারছে না। কিন্তু সামান্য সহযোগীতা তাদের নিয়ে যেতে পারে বহুদূর। আমি শিক্ষার আলোটা যদি তাদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে পারি। তারা নিজেরাও অনুধাবন করতে পারবে যে, তারা যেভাবে শিক্ষার আলোটা পেয়েছে, সেভাবেই সমাজের আরো আট-দশটা সেরকম মেধাবী শিক্ষার্থীদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে উৎসাহিত হবে। যা স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে অনেক বড় ভূমিকা রাখবে বলে আমি আশাবাদী।’

কোথায়. কিভাবে এই কার্যক্রম চালাচ্ছেন সে বিষয়ে রাবির হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগের এই ছাত্র জানান, প্রাইভেট ব্যাচটিকে রাবির কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের উত্তর পাশের বারান্দায় পড়ানো হচ্ছে। বিকেল ৫টা নাগাদ সপ্তাহে ৬দিন ক্লাসের পাশাপাশি নেয়া হচ্ছে ক্লাস টেস্টও। বর্তমানে এখানে ১৫জন ভর্তিচ্ছু রয়েছে।

শিক্ষার্থীদের লজিস্টিক সার্পোটের বিষয়ে আরেফিন আরো জানান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের বাংলা, ইংরেজি ও সাধারণ জ্ঞান পড়ানো হচ্ছে। তাকে এবিষয়ে সহযোগীতা করছেন রাবির আরো তিনজন শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে একই বিভাগের রবিদুল ইসলাম, আসাদুজ্জামান, উত্তম কুমার পাল। তাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় লেকচার শিট তৈরি করে ছাত্র-ছাত্রীদের বিনামূল্যে দেয়া হচ্ছে।

ফ্রি প্রাইভেট নিয়ে আরো বড় পরিকল্পনার কথাও জানান আরেফিন। তিনি বলেন, ১ম বারের মত একা একা কাজটি শুরু করলেও সামনে বছরে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে এধরণের কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। তবে এখন পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানটির নাম ঠিক করা হয়নি।

এদিকে দরিদ্র শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে আরেফিন বলেন, টাকার অভাবে যারা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি কোচিং করতে পারছেন তাদেরকে এই প্রাইভেটে ফ্রি পড়ার সুযোগ করে দিবেন তিনি।

রাশেদ রাজন
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

ঢাকা, ০৪ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ৪.কম)//আরএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।