স্থগিত হলো অস্ট্রেলিয়া-জিম্বাবুয়ে ওয়ানডে সিরিজ


Published: 2020-07-01 18:50:22 BdST, Updated: 2020-08-12 07:30:58 BdST

স্পোর্টস ডেস্কঃ নভেল করোনা ভাইরাসের আগ্রাসী তাণ্ডবের কারণে অচল অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বৈশ্বিক ক্রিড়াঙ্গণে। এবার করোনার প্রভাবে স্থগিত হয়েছে অস্ট্রেলিয়া-জিম্বাবুয়ে ওয়ানডে সিরিজ। ক্রিকেটার, ম্যাচ অফিসিয়ালসহ সংশ্লিষ্টদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই দুই বোর্ডের সমঝোতায় সিরিজ পেছানোর কথা জানিয়েছেন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অন্তর্বর্তীকালীন প্রধান নির্বাহী নিক হকলে।

এদিকে, দ্বিতীয় দফায় টেস্টে কোভিড নেগেটিভ হওয়ায় ইংল্যান্ডে দলের সঙ্গে যোগ দেয়ার অনুমতি পেয়েছেন পাকিস্তানের আরও ৬ ক্রিকেটার।

করোনার প্রকোপে বড় টুর্নামেন্ট কিংবা দ্বিপাক্ষিক সিরিজ স্থগিতের বিষয়টা এখন আর নতুন কিছু নয়। একের পর এক যুক্ত হচ্ছে নাম, তালিকাটা হচ্ছে দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর। যেখানে সবশেষ উঠেছে জিম্বাবুইয়ানদের অস্ট্রেলিয়া সফর।

আগস্টের ৯, ১২ আর ১৫; তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ খেলার কথা দু'দেশের। তবে এই সময়ের মধ্যে ক্রিকেটার, ম্যাচ অফিসিয়াল আর সংশ্লিষ্টদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সম্ভব নয়। এই মর্মে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার। তবে দুই বোর্ডের যৌথ সম্মতিতে দ্রুততম সময়ে পুনরায় সিরিজ আয়োজনের কথাও জানিয়েছেন অজি ক্রিকেটের অন্তর্বর্তীকালীন সিইও।

নিক হকলে বলেন, সিরিজটা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেয়া আমাদের জন্য খুশির কিছু নয়। এটা সত্যিই অনাকাঙ্খিত। তবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া আর জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটের সম্মত হয়েছে যে; ক্রিকেটার, ম্যাচ অফিসিয়াল, স্বেচ্ছাসেবক কিংবা সমর্থকদের স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা চিন্তা করলে এটাই সবচেয়ে যৌক্তিক ও বাস্তবসম্মত। পরিস্থিতি অনুকূলে এলে দ্রুত এই সিরিজ আয়োজনের ব্যাপারে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

অজিদের মাঠে ক্রিকেট না ফিরলেও চীর প্রতিদ্বন্দ্বী ইংলিশদের ২২ গজে লড়াই শুরু হওয়া এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। ক্রিকেট পুনর্জন্মের এই টেস্টের সাদা জার্সিতে একটা বিশেষত্ব যুক্ত করতে যাচ্ছেন ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটাররা। মার্কিন মুল্লুকে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের হত্যার পর সম্প্রতি পুরোবিশ্ব জুড়ে চলা প্রতিবাদের অংশ হচ্ছেন তারা। উইন্ডিজ জার্সির কলারে লেখা থাকবে আন্দোলনের মূলমন্ত্র ব্ল্যাক লাইফ ম্যাটার্স। বিষয়টি উল্লেখ করে ছবিসহ নিজেদের অফিসিয়াল অ্যাকাউন্ট থেকে টুইট করেছে আইসিসি।

এদিকে, উইন্ডিজদের পর ইংল্যান্ডের পরবর্তী সিরিজের প্রতিপক্ষ পাকিস্তানও ইতোমধ্যে পৌঁছে গেছে। এখানেই শেষ নয়। ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনের কথা থাকলেও ৩য় দিনেই অনুশীলন করেছেন পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা। ধারণা করা হচ্ছে ইংল্যান্ডে তাদের কোভিড টেস্ট নেগেটিভ আসায় এই সুযোগ পাচ্ছেন তারা।

তবে আজহার আলীর দলটার কলেবর আবারও বাড়তে যাচ্ছে। কেননা করোনা টেস্টে দ্বিতীয় দফায় নেগেটিভ ফলাফল আসায় দলের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার ছাড়পত্র পেয়েছেন হাফিজ-শাদাবরা। এর আগে সনাক্ত হওয়ার ১৫ দিন পর গত সপ্তাহে প্রথম দফায় নেগেটিভ ফল আসে এই ছয় ক্রিকেটারের। দ্রুত বেসরকারি ফ্লাইটে তাদের ইংল্যান্ড যাত্রার ব্যবস্থা করছে পিসিবি।

ঢাকা, ০১ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।