করোনা: ইসকন কাণ্ডে বিতর্কের দানা বাঁধছে ব্রিটেনে


Published: 2020-04-08 23:03:10 BdST, Updated: 2020-05-29 16:55:22 BdST

লাইভ ডেস্কঃ করোনা নিয়ে আতঙ্কের যেন কোনো শেষ নেই। গোটা বিশ্ব এখন নভেল করোনা ভাইরাসের কারণে অস্থির। এমন অবস্থায় ব্রিটেনে প্রাণঘাতি এই করোনা ভাইরাস বিস্তারের পেছনে হিন্দু গোষ্ঠী ইসকনের (ইন্টারন্যাশনাল সোসাইটি ফর কৃষ্ণ কনশাসনেস) পরোক্ষ ভূমিকাকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ কিছুদিন ধরেই চলছে নানান সমালোচনা।

জানা যায়, ওই মার্চে ব্রিটেনে এক সমাবেশে অংশ নেওয়ার পরে তাদের পাঁচজন সদস্য করোনাভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন। আর এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ২১ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

ইসকন ইউকে শাখার শীর্ষ কর্মকর্তা প্রাঘোসা দাসকে উদ্ধৃত করে গোষ্ঠীর প্রকাশনা ইসকন নিউজে উল্লেখ করা হয়, মার্চের ১২ তারিখে লন্ডনের উপকণ্ঠে ইসকনের এক মন্দিরে তাদের একজন গুরুর শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে তাদের প্রায় হাজার খানেক সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

এ ঘটনার ২ দিন পরে ১৫ই মার্চ লন্ডনের কেন্দ্রে তাদের আরেকটি মন্দিরে শ্রুতিধর্ম প্রভু নামে প্রয়াত ওই গুরুর স্মরণসভাতেও কয়েকশ মানুষ অংশগ্রহণ করেছিলেন। এ ব্যাপারে ইসকন স্বীকার করেছে এখন পর্যন্ত তাদের যে ২১ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং যে পাঁচজন প্রাণ হারিয়েছেন- তারা সবাই ঐ দুই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

শেষকৃত্যে অংশ নেওয়া তাদের আরো সদস্য যে সংক্রমিত হয়ে থাকতে পারেন - সে আশঙ্কার কথা ইসকন কর্তৃপক্ষ উড়িয়ে দেননি। তবে আক্রান্তের সংখ্যা কমপক্ষে একশ বলে সোশাল মিডিয়ায় বিভিন্ন পোস্টে যে দাবি করা হচ্ছে, তা প্রত্যাখ্যান করেছে ইসকন। বিবিসি।

ইসকনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে- আক্রান্তদের মধ্যে বিভিন্ন বয়সী সদস্য রয়েছেন, তাদের অনেকের বয়স 'বিশ এবং তিরিশের কোটায়।'

ঢাকা, ০৮ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।