ইবি ফোকলোর বিভাগে নতুন সভাপতি ড. মোস্তাফিজ


Published: 2019-10-01 17:55:35 BdST, Updated: 2019-10-18 14:20:55 BdST

ইবি লাইভঃ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ফোকলোর স্টাডিজ বিভাগের নতুন সভাপতি হিসেবে দ্বায়িত্ব পেয়েছেন বিভাগের অ্যাসিস্টেন্ট প্রফেসর ড. মোস্তাফিজুর রহমান। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার দুপুরে বিভাগের শ্রেণীকক্ষে দ্বায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

বিদায়ী সভাপতি বাংলা বিভাগের অধ্যাপক সাইদুর রহমান এর মেয়াদ শেষ হওয়ায় গত ২৮ সেপ্টেম্বর ড. মোস্তাফিজুর রহমান তার স্থলাভিষিক্ত হলেন। অনুষ্ঠানে নতুন সভাপতিকে ফুল দিয়ে বরন এবং বিদায়ী সভাপতিকে বিদায়ী সংবর্ধনা জানান আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ।

বিদায়ী সভাপতি প্রফেসর ড. সাইদুর রহমানের সভাপতিত্বে দ্বায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. রাশিদ আসকারী। বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. শাহিনুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. সেলিম তোহা উপস্থিত ছিলেন।

বিভাগের প্রভাষক মৌসুমী আক্তার মৌ'র সঞ্চালনায় এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. নাসিম বানু, বিভাগের অ্যাসিস্টেন্ট প্রফেসর আবু শিবলী মোঃ ফতেহ আলী চৌধুরী, ইংরেজি বিভাগের অ্যাসিস্টেন্ট প্রফেসর লিটন বরণ শিকদার।

ড. মোস্তাফিজ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে মিঠুন মোস্তাফিজ হিসেবে সুপরিচিত। তিনি ২০১৮ সালের ১৫ জুলাই ইবির ফোকলোর স্টাডিজ বিভাগে প্রভাষক পদে নিয়োগ লাভ করেন। পরে ২০১৯ সালের জুলাই মাসে অ্যাসিস্টেন্ট প্রফেসর হিসেবে পদোন্নতি পান। শিক্ষকতার মতো মহতী পেশার পাশাপাশি তিনি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে সাংবাদিকতায় যুক্ত রয়েছেন। দৈনিক বাংলাদেশ সময় পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তিনি।

দ্বায়িত্ব পেয়ে মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘আমার প্রধান কাজ হলো শিক্ষার্থীদের যুগোপযোগী করে গড়ে তুলতে গুণগত পাঠদান নিশ্চিত করা, সঠিক সময়ে পরীক্ষা সম্পন্ন করা, সেশনজট মুক্ত বিভাগ প্রতিষ্ঠা করা। পাশপাশি একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য শিক্ষার্থীদেরকে যুগোপযোগী করে গড়ে তুলতে যে ধরণের সহযোগিতা একটি বিভাগের অব্যাহত রাখা প্রয়োজন তার সবটাই নিশ্চিত করার প্রয়াস থাকবে। গুণগত মানসম্পন্ন স্নাতক ও স্নাতকোত্তর তৈরি করাই আমার ব্রত'

ঢাকা, ৩০সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।