ছাত্রের বিরুদ্ধে শিক্ষকের অভিযোগ; যাচাই-বাছাই করবে শিক্ষক সমিতি


Published: 2019-10-20 20:15:36 BdST, Updated: 2019-11-22 15:31:16 BdST

ইবি লাইভঃ সম্প্রতি ডিবিসি টেলিভিশনে এক সাক্ষাৎকারে দেওয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগ নেতা মিজানুর রহমান লালন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমানের বিরুদ্ধে নানা বক্তব্য ও অভিযোগ তুলে ধরেন।

তারপরই লালনের বক্তব্য মিথ্যাচার এবং সম্মানহানিকর দাবি করে সমিতি বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন ড. মাহবুব। তার অভিযোগের প্রেক্ষিতে গতকাল শনিবার সমিতির কার্যনির্বাহি কমিটির সভায় বিষয়টি যাচাই বাছাই করার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয় এবং তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠিত হয়।

জানা যায়, গত ২৩ সেপ্টেম্বর ডিবিসি টেলিভিশনে বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থিরতা নিয়ে সাক্ষাৎকার দেন শাখা ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান লালন।

এসময় তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমানের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরেন। এসময় তিনি অভিযোগ করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ বানিজ্যের মূলহোতা, শিক্ষার্থীদের দেখে নেয়ার হুমকি, ছাত্রলীগের উপর গুলিবর্ষণের নির্দেশদাতা একমাত্র তিনিই। এছাড়া ড. মাহবুবর রহমানের বিরুদ্ধে ছাত্রজীবনে শিবিরের রাজনীতির সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ করেন এই নেতা।

তারপরেই ড. মাহবুব শিক্ষক সমিতি বরাবর তার বিরুদ্ধে মিথ্যাচারের অভিযোগ এনে বিচারের দাবি জানান। গতকাল শনিবার সমিতির কার্যনির্বাহী সভায় বিষয়টির সত্যতা যাচাই-বাছাইকরনে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠিত হয়।

কমিটিতে শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. কামাল উদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. আলমগীর হোসেন ভুঁইয়া ও প্রগতিশীল শিক্ষক সংগঠন শাপলা ফোরামের সভাপতি প্রফেসর ড. রেজওয়ানুল ইসলাম রয়েছেন।

এবিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রলীগ নেতা লালন বলেন, আমার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ তিনি করেছেন, শিক্ষক সমিতি এর সুষ্ঠু তদন্ত করলে এর সব সত্যতা বেরিয়ে আসবে।

এ বিষয়ে ড. মাহবুবর রহমান বলেন, 'আমি আমার ব্যবস্থা নিয়েছি'।

শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন ভুঁইয়া বলেন, কোন অভিযোগ আসলে এব্যাপারে পরবর্তী ব্যবস্থা নিতে হলে যাচাই-বাছাই করেই নিতে হয়। অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্তে ৩ জনকে দেখাশোনার দ্বায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

ঢাকা, ২০ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।