লকডাউনেও নৃশংসতা, ধর্ষণের পর ছাত্রীকে নদীতে নিক্ষেপ!


Published: 2020-06-18 20:27:20 BdST, Updated: 2020-08-06 21:39:12 BdST

ময়মনসিংহ লাইভ : ময়মনসিংহের ভালুকায় এবার ছাত্রীকে গণধর্ষণের পর হাত-পা বেঁধে নদীতে নিক্ষেপ করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ দুই জনকে আটক করেছে। তারা বৃহস্পতিবার দুপুরে ময়মনসিংহ বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ধারা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। লক্ষীপুরে স্কুলছাত্রী হীরামণি হত্যার রেশ কাটতে না কাটতেই করোনার এমন মহামারী পরিস্থিতিতে আরেকটি নৃশংসতার ঘটনা ঘটলো।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়,কানিজ ফাতেমা নামে ওই ছাত্রী উপজেলার মামারিশপুর গ্রামের ওমর ফারুকের মেয়ে। তিনি হালিমুন নেছা চৌধুরানী মেমোরিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষায় ফেল করে। এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশের দুই দিনের পর নানার বাড়ি ভালুকা পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডে বেড়ানোর কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। হত্যার ১১দিন পর রোববার (১৪জুন) খীরু নদী থেকে পুলিশ তার অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার করে।

থানা সূত্রে জানা যায়, গত ৩ জুন রাতে কানিজ ফাতেমা ভালুকা বাজার থেকে বাড়িতে যাওয়ার পথে ভালুকা পৌরসভার ০৮ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা জহির হোসেনের ছেলে মনির হোসেন (২৩) ও আইয়ুব আলী শেখের ছেলে জামাল হোসেন (২৫) তাকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের এক পর্যায়ে কানিজ ফাতেমা চিৎকার শুরু করলে মনির ও জামালসহ অন্যরা তার গলায় বেল্ট পেঁচিয়ে হাত-পা বেঁধে ক্ষিরু নদীতে ফেলে দেয়। রোববার রাতে ওই ছাত্রীর বাবা ওমর ফারুক খবর পেয়ে থানা এসে নিহতের পরনে কাপড় চোপড় দেখে লাশ শনাক্ত করেন।

এদিকে ওই ঘটনায় হত্যা মামলা করা হলে ভালুকা মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ খোরশেদ আলম, বুধবার রাতে কাঁঠালী গ্রাম থেকে মনির হোসেন ও মোঃ জামাল হোসেনকে গ্রেফতার করেন।

ঢাকা, ১৮ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।