মশার কামড় : নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত নাগরিকের ডিজি


Published: 2019-08-01 20:55:15 BdST, Updated: 2019-08-24 11:32:08 BdST

লাইভ প্রতিবেদকঃ একটি ব্যতিক্রমি জিডি নিয়ে সারা দেশে আলোচনা আর সমালোচনার ঝড় উঠেছে। এর আগে কখনও এধরনের জিডি করা হয়নি বলেও তথ্য মিলেছে। এটাই হয়তো প্রথম জিডি। হ্যা সত্যি বলছি। মশার অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন রাজধানীর এক বাসিন্দা। তার দাবি তিনি নিয়মিত হোল্ডিং ট্যাক্সসহ অন্যান্য ট্যাক্স পরিশোধ করার পরও নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, মশার প্রচণ্ড উৎপাত থাকলেও তা নিরসনে উদ্যোগ নেয়নি সিটি করপোরেশন। এই অবস্থায় মশাবাহিত নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভবানা রয়েছে।
ভুক্তভোগী ওই বাসিন্দার নাম ইউসুফ আহমেদ। রাজধানীর পল্লবী থানার কালশী মেইন রোড এলাকার ১২ নম্বর সেক্টরের বি-ব্লকের ৭৯/বি নম্বর বাসায় বাস করেন। তিনি গত ৩০শে জুলাই পল্লবী থানায় জিডিটি করেন। জিডি নং ২৭৬৬। এ জিডি নিয়ে রয়েছে নানান প্রশ্ন।

ইউসূফ আহমেদের জিডি

 

ওই বাসিন্দা ইউসূফ আহমেদ জিডিতে উল্লেখ করেন, তিনি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ২ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা। নিয়মিত বাড়ির হোল্ডিং ট্যাক্স পরিশোধ করে আসছেন। সেই হিসেবে সিটি করপোরেশনের প্রদত্ত সকল প্রকার নাগরিক সুযোগ-সুবিধা তার প্রাপ্য। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য, বর্তমানে যিনি কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন তাকে এলাকাবাসী পাচ্ছেন না। এই সমস্যা থেকে তিনি এসব করেছেন।

ইউসূফ আহমেদের জিডিতে আরও বলা হয়, ওই এলাকায় মশার ওষুধ ছিটানোর কথা থাকলেও কালসী প্রধান সড়কে তার বাসার পাশে একদিনের জন্যও ছিটানো হয়নি। ফলে মশার অত্যাচারে পরিবারের সদস্যরা অস্থির। বিষয়টি কাউন্সিলরকে মোবাইলে কল করে জানানোর পরও কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

এ অবস্থায় যে কোন সময় পরিবারের সদস্যরা মশাবাহিত ভয়াবহ রোগে আক্রান্ত হতে পারে। জিডির বিষয়ে মানবজমিনের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে, জিডির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন পল্লবী থানা। তবে কেন জিডি নিয়েছে, কি করবেন এখন, তদন্ত কিভাবে হবে এসব নানান প্রশ্নের কোন উত্তর দেয়নি পুলিশ। তারা বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেননি।

ঢাকা, ০১ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি 

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।