মদনে পৃথক স্থানে নিখোঁজ শিশুসহ দুইজনের লাশ উদ্ধার


Published: 2020-07-05 20:18:00 BdST, Updated: 2020-08-08 15:00:06 BdST

নেত্রকোনা লাইভঃ নেত্রকোনার মদনে বাল্কহেড থেকে নদীতে পড়ে আমিনুর রহমান (২৮) নামের এক চালক নিখোঁজ হওয়ার ৯ ঘন্টা পর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। অন্যদিকে একই উপজেলার মাখনা গ্রামের অন্তু (৫) নামে এক শিশুর লাশ ১৫ ঘন্টা পর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল উদ্ধার করেছে।

ময়মনসিংহ ফায়ার ষ্টেশনের ডুবুরী দল ২ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে সেতুর নিচে থেকে রবিবার দুপুরে আমিনুরের লাশ উদ্ধার করে। অপরদিকে বারৈউরার সামনে ধলাই নদী থেকে অন্তুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মদন ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার আহমেদুল কবির উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, আমিনুর ও অন্তুর লাশ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মদন পৌরসদরের মহোহরপুর গ্রামের মৃত শফর উদ্দিনের ছেলে আমিনুর তার নিজের বাল্কহেড দিয়ে বালু পরিবহণ করে থাকে। অন্যদিনের মতো রবিবার ভোরে বালু আনতে নিজ বাড়ি মনোহরপুর থেকে ফতেপুরের উদ্দ্যেশে রওনা হয়।

যাওয়ার পথে মগড়া নদীর ওপর নির্মিত দৌলতপুর কালীবাড়ি সেতুতে পৌছঁলে সেতুর সাথে বল্কহেড সংঘর্ষ হলে আমিনুর নদীতে পড়ে নিখোঁজ হয়ে যায়। স্থানীয়রা খুঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান না পাওয়ায় মদন ফায়ার ষ্টেশনে খবর দেয়।

পরে ময়মনসিংহ ফায়ার ষ্টেশনের ৬ জনের ডুবুরী দল ২ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে রবিবার দুপুরে সেতুর নিচে থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।নিখোঁজের ৯ ঘন্টা পর বাল্কহেড চালকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

অন্যদিকে শনিবার সন্ধ্যায় মাখনা গ্রামের সামনে ধলাই নদীতে ট্রলার দিয়ে ঘুরতে গেলে নদীতে পড়ে ডুবে যায় অন্তু। পরে এলাকার লোকজন খুঁজা-খুঁজি করে না পেয়ে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে ময়মনসিংহ থেকে ডুবুরী দল এসে রবিবার সকালে নিখোঁজের ১৫ ঘন্টা পর তার লাশ উদ্ধার করে।

মদন থানার এস আই মোঃ শামছুল আলম জানান, লাশের সোরতহাল রিপোর্ট তৈরী করা হয়েছে। পরিবারের সিদ্ধান্তনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ঢাকা, ০৫ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।