তেলা মাথায় তেল!


Published: 2020-03-26 12:54:25 BdST, Updated: 2020-06-03 13:41:14 BdST

মানিক মুনতাসিরঃ করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় গার্মেন্টস খাতের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকার সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। নি:সন্দেহে ভাল উদ্যোগ। কিন্ত এটা ব্যয় হবে এ খাতের শ্রমিকদের বেতন ভাতায়। তাহলে কি দাড়াল শ্রমিকরা কাজ করবেন কারখানার মালিকদের জন্য আর বেতন দেবে সরকার। সেটা কার টাকা? নিশ্চই জনগনের করের টাকা।

এর আগে ২০১০ সালে বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দায়ও এমন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল। তখন অবশ্য সেটার নাম ছিল স্টিমুলাস প্যাকেজ। তখন শ্রমিকদের পাশাপাশি মালিকদেরও সহায়তা দেয়া হয়।

আচ্ছা দেশের এই মহাদুর্যোগে নিম্ন আয় কিংবা গরিবদের জন্য এ খাতের কোন শিল্প মালিক কি এক টাকাও সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন। বিজিএমইএ থেকে চিকিৎসকদের জন্য পিপিই পর্যন্ত কি বিনামুল্যে দেয়া সম্ভব ছিল না?

মাঝারি সারির গার্মেন্ট মালিক এমন কি ছোট খাট বায়িং হাউজের মালিকদের মধ্যে এমন একজন কি পাওয়া যাবে ঢাকায় যার বাড়ি নাই, গাড়ি নাই। ব্যাংকে অন্তত কোটি টাকা নাই। তাহলে দেশের প্রতি তাদের দায়বদ্ধতা কি শুধুই রপ্তানি আয়। নাকি অন্য কিছু করার আছে?

এবার আসুন ওএমএস, ভিজিএফের কথায়। এই প্রোগ্রামের আওতায় এখনো ৬০/৭০ লাখের মত মানুষকে আনা গেছে। আর দেশে গরিবের সংখ্যা অন্তত সাড়ে চার কোটি। তার মানে প্রায় চার কোটি গরীব মানুষ সরকারের কোন সুবিধা পাচ্ছে না। তারা নিজেদের ওপর নির্ভরশীল। এই দুর্যোগে কতসংখ্যক মানুষকে সরকার সহায়তা করবে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে সেটার কোন গন্ধ আমি পাইনি। সংবাদকর্মী ও চিকিৎসকরা সবচেয়ে ঝুকি নিয়ে কাজ করছেন এবং করবেন এটাই স্বীকৃত। এদের জন্য তো ন্যুনতম কিছু নাই। সাধারণ মানুষ সন্দেহভাজন কোরোনা রোগী টেস্ট করাতে পারছে না এমন অভিযোগ অহরহ।

জনগন ঘরে থাকবে ভাল কথা হবে। কিন্তু তাদের খাবার, ওষুধ কে দেবে সেটাও তিনি বলেন নি? তাহলে কি দাড়াল তাঁর বক্তব্যে শুধু গার্মেন্ট মালিক আর গার্মেন্ট শ্রমিকদের আশার বাণী দেয়া হলো। অথচ আপনি একটা টেস্ট করাতে পারা কিংবা আক্রান্ত হলে চিকিৎসা পাবেন তার নিশ্চয়তা কি প্রধানমন্ত্রীর কাছে আশা করতে পারি না আমরা সাধারণ মানুষ?

অথচ এই মুহুর্তে স্বাস্থ্য খাতে দরকার ছিল সবচেয়ে বেশি জরুরি বরাদ্দ। যা প্রয়োজন তা।

লেখকঃ মানিক মুনতাসির
সাংবাদিক
বাংলাদেশ প্রতিদিন

ঢাকা, ২৬ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//টিআর

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।