ঠাকুরগাঁও চিরন্তনের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটি ঘোষণা


Published: 2020-09-12 13:08:01 BdST, Updated: 2020-10-31 00:43:59 BdST

ঠাকুরগাঁও লাইভ: জেগে উঠো ঠাকুরগাঁওবাসী, সবার মুখে ফুটবে হাসি এই স্লোগানকে ধারন করে ঠাকুরগাঁও জেলার অন্তর্গত বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দ্বারা পরিচালিত সামাজিক সংগঠন ঠাকুরগাঁও চিরন্তনের পূর্নাঙ্গ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটি-২০২০ ঘোষণা করা
হয়েছে।

সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের স্বাক্ষরিত এক নোটিশে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংগঠনটির পূর্নাঙ্গ কার্যনির্বাহী কমিটি ঘোষণা করা হয়। উক্ত কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী খায়রুল কবির সোহাগ এবং সাধারণ-সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মোঃ শাহীন আলম।

এছাড়াও পূর্নাঙ্গ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটিতে সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন রাসেল রানা (বেরোবি), মোস্তাফিজুর রহমান (রাবি), মাসুূদ রানা (বুয়েট), মাহবুবুর রহমান সিজার (চুয়েট), মোঃ মেহেদী হাসান (রাবি), সরকার আতাউজ্জামান সৌরভ (শেকৃবি), বায়াতুল্লাহ ইমন (কুয়েট), সাজিদ হাসান রিমু (ডুয়েট)।

যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন- সোনালী আক্তার (ইবি),আতিক রব্বানী নিলয় (কুমেক), শ্রী সঞ্জয় কুমার রায় (হাবিপ্রবি), মোঃ সোজান হোসেন (রুয়েট), মেহেদী হাসান (চবি), ওবাইদুর রহমান (বেরোবি), সিরাজুল ইসলাম সোহাগ (বশেমুরবিপ্রবি), তারেক রহমান (ঢাবি)। সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে রয়েছেন রিপন আলী (জাবি) এবং সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন. তানজিমুল হাসান রিফাত (খুবি), চিন্ময়ী রায় দোলা (জবি), মোমিন ইসলাম (বাকৃবি), মোঃ জামিল চৌধুরী (ঢাবি), মোস্তাকিম ইসলাম (বেরোবি), মোঃ মোশাররফ হোসাইন (চবি)।

এছাড়াও দপ্তর সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন সন্দীপ দাস জয় (ঢাবি) এবং উপ-দপ্তর সম্পাদক হিসেবে রয়েছেন মাহবুবুর রহমান মাবুদ (জবি)। প্রচার সম্পাদক হিসেবে রয়েছেন রাসেল পারভেজ (বাকৃবি) এবং উপ-
প্রচার সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন মোঃ আবু সাহেব (হাবিপ্রবি)।

অর্থ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন শালিন আল শাহরিয়ার সৌরভ (জবি) এবং উপ-অর্থ সম্পাদক- শামীম হোসেন (ঢাবি)। আইন সম্পাদক হিসেবে রয়েছেন দীপঙ্কর বর্মন দীপু (রাবি) এবং উপ-আইন সম্পাদক- মোঃ শাহজালাল হৃদয় (জবি)। ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন মোঃ
আফসুদ্দিন (পাবিপ্রবি) এবং উপ-ত্রাণ ও দূর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক- রাকিবুল ইসলাম (হাবিপ্রবি)। সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে রয়েছেন মুসাররাত অর্ণবী (ইবি)এবং উপ-সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক- মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন (পাবিপ্রবি)। ক্রীড়া সম্পাদক হিসেবে রয়েছেন সুদীপ্ত রায় (বশেমুরবিপ্রবি) এবং উপ-ক্রীড়া সম্পাদক- আব্দুল্লাহ আল মামুন (কুবি)।

গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন জোবায়দুর রহমান রাজু (শেকৃবি) এবং উপ-গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক- আবু বক্কর সিদ্দিক (চবি)। গ্রন্থনা ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক- আবুল বরকত জয় (জাবি) এবং উপ-গ্রন্থনা ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক- মসলিন উদ্দিন (বশেমুরবিপ্রবি)। শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক- আয়েশা আকতার (বেরোবি) এবং উপ-শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মনিন হক (রুয়েট)।

মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন মোস্তাহিদ পারভেজ (হাবিপ্রবি) এবং উপ- মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক- রতন কুমার (জবি)। সেমিনার বিষয়ক সম্পাদক- প্রসেনজিৎ রায় (ঢাবি) এবং উপ-সেমিনার বিষয়ক সম্পাদক- জান্নাতুল লুবনা চৌধুরী (রাবি)। পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আলী আহসান (বশেমুরবিপ্রবি) এবং উপ-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আবির হাসান হিমেল (চবি)। গণসংযোগ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক কৌশিক সংকর রায় (কুয়েট) এবং উপ-গণসংযোগ বিষয় সম্পাদক সালামত রব্বানী মিলন (হাবিপ্রবি)।

আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক- মোঃ গফুর (রাবি) এবং উপ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক- ইয়াকুব আলী (রাবি)। মুক্তিযুদ্ধ ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক- আব্দুল্লাহ আল রাফি (কুয়েট) এবং উপ-মুক্তিযুদ্ধ ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক- আদনান খান (চবি)। কর্মসংস্থান বিষয়ক সম্পাদক- মোঃ দেলুয়ার হোসেন (মাভাবিপ্রবি) এবং উপ- কর্মসংস্থান বিষয়ক সম্পাদক- সারোয়ার হোসেন সাইফ (বেরোবি)।

তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক- মোঃ মমিনুল ইসলাম (ঢাবি) এবং উপ-তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক - মেহেদী হাসান সবুজ (শাবিপ্রবি)। পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক- মোঃ মাসুদ রানা (শাবিপ্রবি) এবং উপ- পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক- আঁখি রায় (রাবি)। কর্মসূচী ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক- সুমন মোহাম্মদ (ঢাবি) এবং উপ-কর্মসূচী ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক- আব্দুল কাদের জিলানী (ঢাবি)। নারী বিষয়ক সম্পাদক-সাদিয়া সাবাহ (জবি) এবং উপ-নারী বিষয়ক সম্পাদক- মিনারা রহমান (জবি)। সমাজ সেবা বিষয়ক সম্পাদক- আয়াতুন্নাহ হাসান (ঢাবি) এবং উপ-সমাজ সেবা বিষয়ক সম্পাদক- মিথুন দেবনাথ নিরব (রাবি)। ছাত্র বৃত্তি সম্পাদক- মোঃ আনোয়ার হোসেন (বেরোবি) এবং উপ-ছাত্র বৃত্তি সম্পাদক- রুমান ফারুক (রাবি)। সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক- মোঃ উজ্জ্বল (হাবিপ্রবি) এবং উপ-সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক- মোঃ ইমাম হোসেন (জবি)। স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা বিষয়ক সম্পাদক- মতিউর রহমান (রমেক) এবং উপ-স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক- মুশফিকুর রহমান (খুমেক)।

আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক- নাহিদা আক্তার কচি (জবি) এবং উপ-আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক- উম্মে হাবীবা ইতি (শেকৃবি)। বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক- সৌরভ রায় (ঢাবি) এবং উপ- বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক- মোঃ সাজ্জাদ হোসাইন (কুয়েট)।এ ছাড়াও কার্যকরী সদস্য হিসেবে রয়েছেন- জ্যোতির্ময় রায় (পবিপ্রবি), সাদিয়া তাসনিম অনন্যা (রাবি), কনক ফারজানা (ঢাবি), হিরা রায় (চবি), মোঃ সজীব হোসেন (ঢাবি), জারিন তাসনিম শৈতি (রাবি), শেখ ফরিদ (রাবি),আকাশ আলী (পাবিপ্রবি)।

কমিটির ঘোষণা বিষয়ে সভাপতি খায়রুল কবির সোহাগ বলেন, জেগে উঠো ঠাকুরগাঁও বাসীসবার মুখে ফুটবে হাসি এই স্লোগান কে ধারন করে আমাদের ঠাকুরগাঁও চিরন্তন এর পথচলা। দীর্ঘ সময় পর আমরা আজ আমাদের পূর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করছি।আমরা জানি আমরা সবাই চিরন্তনের জন্য নিবেদিত প্রাণ। আমাদের জেলাকে এগিয়ে নিতে আমরা বদ্ধপরিকর।আমি ব্যাক্তিগত ভাবে মনে করি ঠাকুরগাঁও এর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া প্রতিটি শিক্ষার্থী কমিটিতে থাকার যোগ্য।কমিটিতে অনেক অধিকতর যোগ্য শিক্ষার্থী হয়তো স্থান পায়নি অথবা পছন্দের পদ পায়নি, এর জন্য আমি আন্তরিক ভাবে দুঃখিত।

কমিটি শুধু কিছু মানুষের উপর দায়িত্বের বোঝা চাপিয়ে দেওয়া ছাড়া আর কিছু নয়। আসুন মনের সকল কিন্তু ভুলে আমরা নতুন সদস্যদের অভিনন্দন জানাই, আর সবাই এক হয়ে কাজ করার প্রতিশ্রুতি গ্রহন করি।

এ বিষয়ে কার্যনির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহীন আলম বলেন, ঠাকুরগাঁও কে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য ঠাকুরগাঁও জেলার সকল পাবলিকিয়ানদের নিয়েই আমাদের ঠাকুরগাঁও চিরন্তন। ঠাকুরগাঁও চিরন্তন এর পূর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। অনেকে কমিটিতে স্থান পায়নি, এজন্য আমরা আন্তরিক ভাবে দুঃখিত।

যাদের কমিটিতে নাম আসে নি অনেকেই কিন্তু উপজেলা কমিটির জন্য সিলেকশন হয়ে আছেন। আপনারা সবাই ঠাকুরগাঁও এর প্রাণ। প্রিয় ভাই বোনেরা, দয়া করে ঠাকুরগাঁওকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য ভালো কাজকে প্রমোট করুন। সবাইকে অনেক অনেক অভিনন্দন ও শুভকামনা। সকল পাবলিকয়ান ভাইবোন এর সহযোগিতা চাচ্ছি, ভালো কাজগুলোতে প্লিজ পাশে থাকবেন।

উল্লেখ্য, ঠাকুরগাঁও জেলার প্রায় ৩২০০ জনেরও বেশি শিক্ষার্থী দেশের বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত রয়েছেন।

ঢাকা, ১২ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।