লকডাউনে বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে বাসায় গিয়ে একমাত্র সন্তান নিহত!


Published: 2020-04-30 19:49:09 BdST, Updated: 2020-06-06 12:45:55 BdST

ঝিনাইদহ লাইভ : করোনাভাইরাসে লকডাউনের কারণে বাসায় গিয়েছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র আরাফাত রহমান। সেখানে জমি নিয়ে বিরোধের কারণে প্রাণ গেছে তার। সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান আরাফাত। তিনি কুষ্টিয়ার বেসরকারি রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন। তার নিহতের ঘটনায় ৭জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আরাফাতের বাবা অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য জাহাঙ্গীর ওরফে বিদ্যুৎ বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন। মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে গোলাম জোয়ারদারের বখাটে ছেলে উজ্জলকে। ওসি বজলুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য জাহাঙ্গীর ওরফে বিদ্যুতের একমাত্র ছেলে আরাফাত রহমান ইংরেজি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন। মঙ্গলবার বেলা অনুমান ১১ টার দিকে বাড়ির পাশের এক খন্ড জমি নিয়ে একই গ্রামের গোলাম জোয়ারদারের সাথে আরাফাতের বাবার কথাকাটাকাটি শুরু হয়। এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষরা ভারী লাঠি দিয়ে তার মাথায় আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়ে আরাফাত। একই দিন রাত ১২টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আরাফাত। তাকে দাফন করা হয়েছে গ্রামের কবরস্থানে।

এ দিকে শৈলকুপা থানার ওসি জানিয়েছেন ঘটনার সাথে জড়িত প্রকৃত ব্যক্তিদের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ঢাকা, ৩০ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।