রাবিতে এমফিল-পিএইচডি কোর্সে ভর্তি আবেদন শুরু


Published: 2021-09-13 12:31:57 BdST, Updated: 2021-09-18 06:38:37 BdST

রাবি লাইভ: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বিভাগসমূহে ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে এমফিল ও পিএইচডি কোর্সে ভর্তির জন্য আবেদনপত্র আহ্বান করা হয়েছে। আবেদনের শেষ তারিখ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক প্রফেসর ড. আজিজুর রহমান এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে,এমফিল প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য প্রার্থীর অবশ্যই এসএসসি/সমমান এবং এইচএসসি/সমমান পরীক্ষার সনাতন পদ্ধতিতে যে কোনো একটিতে প্রথম বিভাগ ও অন্যটিতে ন্যূনতম দ্বিতীয় বিভাগ অথবা গ্রেডিং পদ্ধতিতে উভয় পরীক্ষার প্রতিটিতে ৪র্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ৩.৭৫ থাকতে হবে।

কলা/সামাজিক বিজ্ঞান/চারুকলা অনুষদভুক্ত বিভাগসমূহ থেকে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে স্নাতক (সম্মান)/সমমান এবং স্নাতকোত্তর পরীক্ষার সনাতন পদ্ধতিতে যে কোনো একটিতে ন্যূনতম ৫৫% ও অন্যটিতে ন্যূনতম ৫০% নম্বর থাকতে হবে (তবে কলা অনুষদভুক্ত ইংরেজি বিভাগ থেকে উত্তীর্ণদের ক্ষেত্রে উভয় পরীক্ষায় ন্যূনতম ৫০% নম্বর থাকতে হবে) অথবা গ্রেডিং পদ্ধতিতে সিজিপিএ ৪ স্কেলের মধ্যে উভয় পরীক্ষার একটিতে নূন্যতম সিজিপিএ ৩.২৫ ও অন্যটিতে ন্যূনতম সিজিপিএ ৩.০০ থাকতে হবে।

আইন/বিজ্ঞান/বিজনেস স্টাডিজ/জীববিজ্ঞান/কৃষি/প্রকৌশল/ভূ-বিজ্ঞান/ফিশারীজ/ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সায়েন্সেস অনুষদভুক্ত বিভাগসমূহ থেকে উত্তীর্ণদের ক্ষেত্রে স্নাতক (সম্মান)/সমমান এবং স্নাতকোত্তর পরীক্ষার সনাতন পদ্ধতিতে উভয় পরীক্ষায় ন্যূনতম ৫৫% নম্বর থাকতে হবে অথবা গ্রেডিং পদ্ধতিতে সিজিপিএ ৪ স্কেলের মধ্যে উভয় পরীক্ষায় ন্যূনতম সিজিপিএ ৩.২৫ থাকতে হবে।

এমবিবিএস/বিডিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের ক্ষেত্রে সনাতন পদ্ধতিতে ন্যূনতম ৬০% নম্বর থাকতে হবে। ডিভিএম পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে সনাতন পদ্ধতিতে ন্যূনতম ৬০% নম্বর অথবা গ্রেডিং পদ্ধতিতে সিজিপিএ ৪ স্কেলের মধ্যে ন্যূনতম সিজিপিএ ৩.৫০ থাকতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, যদি কোন প্রার্থীর উপরে বর্ণিত এমফিল প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতার কোনো একটি শর্ত পূরণ না হয়, তিনি এমফিল প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন, যদি তাঁর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে/বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত)/সরকারি কলেজে ৩ বছরের শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা অথবা অনার্স পর্যায়ের বেসরকারি ডিগ্রি কলেজে অনার্স শ্রেণিতে ৩ বছরের শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা অথবা কোনো স্বীকৃত গবেষণা প্রতিষ্ঠানে ৩ বছরের গবেষণা কাজের অভিজ্ঞতা এবং কোনো স্বীকৃত জার্নালে ন্যূনতম ২টি গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়ে থাকে।

পিএইচডি প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য প্রার্থীর এমফিল প্রোগ্রামে আবেদনের উপরিউক্ত যোগ্যতাসহ অবশ্যই এমফিল/সমমান ডিগ্রি থাকতে হবে। তবে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমফিল ডিগ্রিপ্রাপ্তগণ পিএইচডি প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য প্রাথমিক আবেদনপত্র জমা দিতে পারবেন। তবে, প্রার্থীর যদি এমফিল প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য উপরিউক্ত যোগ্যতা থাকে এবং তিনি যদি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন/সরকারি বৃত্তি/বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্সেস ফেলোশিপ অর্জন করে থাকেন, তাহলে তাঁরা পিএইচডি প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন।

অথবা, এমফিল প্রোগ্রামে আবেদনের জন্য উপরিউক্ত যোগ্যতাসহ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে/বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত)/সরকারি কলেজে ৭ বছরের শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা; অথবা, স্নাতক (সম্মান)/সমমান পর্যায়ের বেসরকারি ডিগ্রি কলেজে অনার্স শ্রেণিতে ৭ বছরের শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা, অথবা কোনো স্বীকৃত গবেষণা প্রতিষ্ঠানে ৭ বছরের গবেষণা কাজের অভিজ্ঞতা এবং কোনো স্বীকৃত জার্নালে ন্যূনতম ৩টি গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়ে থাকলে প্রার্থী পিএইচডি প্রোগ্রামে ভর্তির প্রাথমিক আবেদন করতে পারবেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি মোতাবেক এমফিল প্রোগ্রামে ভর্তিপ্রাপ্ত গবেষকগণের মধ্য থেকে প্রতি বিভাগে ১ জনকে মাসিক ৪,০০০/- টাকা হারে ২ বছরের জন্য ফেলোশীপ প্রদান করা হবে। তবে, চাকুরীজীবিদের জন্য এ ফেলোশীপ প্রযোজ্য নয়।

চাকুরীরত প্রার্থীদের ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষের অনুমতি থাকবে হবে এবং নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃক এমফিল প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য ১ বছর এবং পিএইচডি প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য ২ বছর ছুটি দেয়া হবে-এই মর্মে একটি সম্মতিপত্র অবশ্যই আবেদনের সাথে সংযুক্ত করতে হবে।

ভর্তির বিস্তারিত তথ্য ও প্রাথমিক আবেদনপত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট www.ru.ac.bd-এর নোটিশ অংশে পাওয়া যাবে। সংশ্লিষ্ট বিভাগ থেকে ভর্তি সংক্রান্ত অন্যান্য শর্তাবলী (যদি থাকে) জানা যাবে।

ঢাকা, ১৩ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//ওএফ//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।