কথার জাদুকর, বালকের গল্প!


Published: 2018-07-20 16:53:56 BdST, Updated: 2019-09-18 08:46:53 BdST

আইভান আতিন রোমান: 'জোসনা ও জননীর গল্প' ছিলো আমার পড়া হুমায়ূন আহমেদের প্রথম লেখা। বেশ ছোট ছিলাম তখন, খুব সম্ভবত ক্লাস থ্রি বা ফোরে পড়ি। উপন্যাস পড়ার পক্ষে খুবই অল্প বয়স সেটি। তারপরও সেদিন উপন্যাসটি শেষ করে এক রকম মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিলাম আমি। এখনও মনে আছে অবাক বিস্ময় নিয়ে প্রথম থেকে আবার পড়ে শেষ করেছিলাম উপন্যাসটি আমি। ঠিক সেদিন থেকে হুমায়ূন আহমেদ আমার ছোট্ট হৃদয়ে নেশার মত গেঁথে গিয়েছিলো।

আমাকে হুমায়ূন নেশায় আচ্ছন্ন করার পেছনে সবচেয়ে বড় অবদান রেখেছে আমার হুমায়ূন-প্রেমী বোন কোন কাননের ফুল। শুধু হুমায়ূন আহমেদ না, ঐ বয়সেই সে আমার হাতে ধরিয়ে দিয়েছিলো সমরেশ মজুমদারের 'আট কুঠুরি নয় দরজা' মুহাম্মদ জাফর ইকবালের 'অবনীল' এর মত মাস্টারপিস।

যাইহোক, সেই ক্লাস থ্রি-ফোরে শুরু, তারপর থেকে এই দীর্ঘ সময়ে বুভুক্ষের মত হুমায়ূন আহমেদের সব অমর সৃষ্টিগুলো গলধকরন করেছি। হূমায়ূন-প্রেমে পড়ে প্রাইভেটের টাকা মেরেছি, টিফিনের খরচ বাঁচিয়েছি। নাওয়া-খাওয়া ছেড়ে ঘন্টার পর ঘন্টা পাবলিক লাইব্রেরিতে বসে বসে তাঁর বই পড়েছি (তখন ক্যান্টনমেন্টের স্টেশন লাইব্রেরির কার্ড করার সুযোগ ছিলো না!) এরপর এলো পিডিএফ প্রজন্ম, যা ছিলো আমার মত গরিব পাঠকদের জন্য দারুন একটা ব্যাপার।

আমার এখনও মনে আছে, ক্লাস নাইনে থাকতে Nokia 6120c মডেলের একটা সিম্বিয়ান অপারেটিং সিস্টেমওয়ালা ফোন ছিলো আমার এবং যেটা পিডিএফ সাপোর্ট করতো। রাতের পর রাত জেগে সেই নোকিয়ার তিন ইঞ্চি স্ক্রিনে কত শত হুমায়ূন শিল্পকর্ম আমি অবাক বিস্ময় নিয়ে হৃদয়ে ধারন করেছি।

তার গল্পগুলোর মতই এই তৃষ্ণার্ত প্রেমিক হৃদয়ে অপূর্ণতা রেখেই তিনি হারিয়ে গেলেন। আমি নিশ্চিত জানি ২০১২ সালের ১৯শে জুলাই দিনটি ছিলো আমার মত হাজারও বাঙালীর জন্য হৃদয়বিদারক একটা দিন। কেবলই মনে হচ্ছিলো, আমার রঙিন শৈশব-কৈশরের রসদগুলো বোধহয় হারিয়ে গেলো।

স্যারের নতুন বইয়ের আশায় থাকা সুন্দর মূহূর্তগুলোর বোধহয় ইতি ঘটলো। হাজারও যুবকের লালিত আদর্শের সেই হিমু, মায়াবতী রূপা, অদ্ভূতুরে মিসির আলী, মোটা গ্লাসের চশমা পড়া বোকাসোকা শুভ্র বা অভাবে জর্জরিত জহিরদের কি হবে ভাবতে ভাবতে দেখি সামনেটা ঝাপসা হয়ে আসছে।

হুমায়ূন আহমেদ স্যার কেবল একজন কথাসাহিত্যিক ছিলেন না, তিনি ছিলেন আমার মত হাজারও যুবকের অপূর্ণতার দীর্ঘশ্বাস, তিনি ছিলেন আবেগে গলা বুজে আসা অনুভূতি, তিনি ছিলেন আমার শৈশব-কৈশরের শ্রেষ্ঠ উপহার!

যেখানেই থাকেন স্যার, অনেক ভালো থাকবেন। আমার যতদিন ভালোবাসার ক্ষমতা থাকবে, আমি নিরন্তর আপনাকে, আপনার সৃষ্টিকে ভালোবেসে যাবো। কেননা, এ ভালোবাসা আপনার কাছেই শেখা!

 


আইভান আতিন রোমান
সাবেক শিক্ষার্থী
গণ বিশ্ববিদ্যালয়


ঢাকা, ২০ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

 

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।