এবার আমেরিকার বিরুদ্ধে চীনের পাল্টা নিষেধাজ্ঞা


Published: 2020-07-13 20:29:03 BdST, Updated: 2020-08-14 17:04:31 BdST

লাইভ ডেস্ক: এবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পাল্টা নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করছেন চীন। শিনজিয়াং প্রদেশে উইঘুর মুসলিমদের উপর নির্যাতনের অভিযোগ পুরনো। এই ইস্যুতে এবার উত্তপ্ত চীর বৈরী যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সম্পর্ক। মানবাধিকার লংঘনের অভিযোগে ৪ চীনা কর্মকর্তার উপর সোমবার নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র।

তার কিছু পর যুক্তরাষ্ট্রের ২ সিনেটরসহ কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পাল্টা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে চীন। ১৩ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা আরোপের পরপরই চীন পাল্টা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলো। এতে দেশ দুটির মধ্যে আবারো উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। নিষেধাজ্ঞার আওতায় দুই সিনেটর ছাড়াও আরো ২ জন উর্ধতন কর্মকর্তা রয়েছেন। তার আগে বেইজিং যুক্তরাষ্ট্রের আরোপ করা নিষেধাজ্ঞার নিন্দা জানিয়ে এর বিরুদ্ধ ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দেয়।

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মুখপাত্র হুয়া চুনয়িং বলেন, ‘চীনের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া নিষেধাজ্ঞা বিশ্ব রাজনীতিতে বৈরী প্রভাব ফেলবে। এমনকি যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি তো করবেই। চীন এই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। চীনের এই সিদ্ধান্তকে অমান্য করার কোনো সুযোগ নেই।’ চীনের দেয়া এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকা ব্যক্তিগণ চীনের কোনো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে লেনদেন অথবা চীন ভ্রমণ করতে পারবেন না।

চীন অথবা চীনের মিত্র কোনো দেশর সঙ্গে এই কর্মকর্তারা যুক্ত হতে পারবেন না কোনো বাণিজ্যিক কার্যক্রমে। নিষেধাজ্ঞায় পড়া চার কর্মকর্তা হলেন, চীনের জিনজিয়াং প্রদেশ কমিউনিস্ট পার্টির সেক্রেটারি চেন কুয়াংগু, অঞ্চলটির সাবেক পার্টি সেক্রেটারি ঝু হাইলুন, জিনজিয়াং পাবলিক সিকিউরিটি ব্যুরোর পরিচালক ও পার্টি সেক্রেটারি ওয়াং মিংশান এবং সাবেক পার্টি সেক্রেটারি হুয়ো লিউজুন।

যুক্তরাষ্ট্রের নতুন নিষেধাজ্ঞাকে পারস্পরিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে ‘অত্যন্ত ক্ষতিকারক’ বলে বর্ণনা করেছে বেইজিং। এর আগে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নিয়ে চীন-যুক্তরাষ্ট্রের একে অপরকে দোষাদোষী এবং হংকং নিয়ে এরই মধ্যে দু’দেশের মধ্যে তিক্ত হয়ে ওঠা সম্পর্কে নতুন মাত্রা যোগ করেছে এ নিষেধাজ্ঞা।রাজধানী বেইজিংয়ে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান সাংবাদিকদের বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্ত চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে

এ নিষেধাজ্ঞার কারণে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে এই চীনা কর্মকর্তাদের কোনোরকম লেনদেন নিষিদ্ধ হওয়াসহ তাদের সম্পদ জব্দ হওয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণও নিষিদ্ধ করা হয়। এখ কেবলই অপেক্ষার পালা।

ঢাকা, ১৩ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।