শোকের সমুদ্রে ভাসছে গানের আঙিনা এবি বস, আইয়ুব বাচ্চুকে বিদায়ের ২ বছর


Published: 2020-10-18 02:11:31 BdST, Updated: 2020-10-23 11:26:48 BdST

শোবিজ লাইভ: ‘এবি বস’ খ্যাত আইয়ুব বাচ্চু। একটি নাম একটি প্রতিভার অবসান হয়ে গেছে। কেবলই স্মৃতি আর স্মৃতি। দেখতে দেখতে দু'টি বছর পর হয়ে গেল। দুই বছর আগের ১৮ অক্টোবর। সকালটা শুরু হয়েছিলো আর ১০টা সকালের মতোই। বেলা বাড়তেই খবর এলো- আইয়ুব বাচ্চু নেই! যেন মোকের মাতম।

চারদিকে একই সুর একই রব। বাচ্চু ভাই আর নেই। মুহূর্তেই খবরটি ছড়িয়ে পড়ল সারাদেশে। শোকের সমুদ্রে ভেসে গেছে দেশের গানের আঙিনা। শোকাহত হয়ে পড়েন শোবিজের সবাই। রুপালি গিটার ফেলে যাওয়া ‘এবি বস’ খ্যাত আইয়ুব বাচ্চুর ভক্তরা কেঁদে ভাসালেন বুক। কিন্তু তাতে কি আর হয়?

সেদিন লোকে লোকারণ্য হয়েছিল এ কিংবদন্তির শেষ যাত্রায়। ঢাকা ও চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত বাচ্চুর জানাজায় লাখ লাখ মানুষ অংশ নিয়েছিল। এসেছিলেন অন্য ধর্মের মানুষেরাও ঝাঁকে ঝাঁকে, প্রিয় তারকাকে শেষ বিদায় জানাতে। দেখতে দেখতে আজ ২ বছর হয়ে গেল সেই বিষাদে ভরা ১৮ অক্টোবরের। আজ আইয়ুব বাচ্চুর দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী।

রুপালি গিটার ফেলে চলে গেছেন সবার প্রিয় এবি বস, কিন্তু আজও তিনি প্রাণবন্ত হয়ে আছেন ভক্তদের হৃদয়ে। আছেন রোজকার চর্চায়। কয়েকটি প্রজন্মকে গানের বন্ধনে আবদ্ধ করে রেখেছিলেন আইয়ুব বাচ্চু। ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

জনপ্রিয় ছিলেন একাধারে গায়ক, গীতিকার, সুরকার, সংগীত পরিচালক হিসেবে। তার হাত ধরে সমৃদ্ধ হয়েছে বাংলা ব্যান্ডজগৎ, এদেশের চলচ্চিত্রও পেয়েছে অনেক শ্রোতাপ্রিয় গান। ১৯৭৮ সালে ‘ফিলিংস’ ব্যান্ডের মাধ্যমে গানের ভুবনে পথচলা শুরু করেন আইয়ুব বাচ্চু। এরপর ১০ বছর সোলস ব্যান্ডের লিড গিটারিস্ট হিসেবে কাজ করেন। নব্বইয়ের দশকে যাত্রা শুরু হয় ‘ব্যান্ডদল এলআরবি’র। এর দলনেতা ছিলেন।

দীর্ঘ কয়েক দশকে অসংখ্য কালজয়ী, জনপ্রিয় গান উপহার দিয়েছেন আইয়ুব বাচ্চু। ‘চলো বদলে যাই,’ ‘হাসতে দেখো,’ ‘এখন অনেক রাত,’ ‘রুপালি গিটার’, ‘মেয়ে’ ‘আমি কষ্ট পেতে ভালোবাসি,’ ‘সুখের এ পৃথিবী,’ ‘ফেরারি মন,’ ‘উড়াল দেবো আকাশে,’ ‘বাংলাদেশ,’ ‘আমি বারো মাস তোমায় ভালোবাসি,’ ‘এক আকাশের তারা।

‘সেই তারা ভরা রাতে,’ ‘কবিতা,’ ‘আমি তো প্রেমে পড়িনি,’ ‘তিন পুরুষ,’ ‘যেওনা চলে বন্ধু,’ ‘বেলা শেষে ফিরে এসে,’ ‘আমি তো প্রেমে পড়িনি,’ ‘তিন পুরুষ’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গানের স্রষ্টা তিনি। গত বছরের ১৮ অক্টোবর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান এই কিংবদন্তি শিল্পী।

বাবার জন্যে দোয়া কামনা:

বাবার জন্য আবেগঘন এক লেখা লিখলেন আইয়ুব বাচ্চুর মেয়ে ফাইরুজ সাফরা আইয়ুব ও ছেলে আহনাফ তাজওয়ার আইয়ুব। তারা তার বাবার জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।
দুই ভাইবোন সম্প্রতি ফেসবুকে বাবার স্মৃতিচারণ করে লিখেছেন, ‘বাবুইকে (আইয়ুব বাচ্চু) ছাড়া চলে গেল দুই বছর। আরো ক'বছর এভাবে যাবে জানি না।

এই ছবি কেবলই স্মৃতি...

 

আমাদের মত আপনাদেরও (ভক্তদের) অনেক কষ্টের এই ১৮ অক্টোবর। আমার বাবুইয়ের জন্য সবাই মন থেকে দোয়া করবেন। তার ভক্তদের অনেকেরই জানার আগ্রহ আমরা পারিবারিকভাবে কি করছি ওই দিন। তাই এই কথাগুলো লেখা।

আমরা বাবুইয়ের জন্য তার জন্মদিনে ও গত বছর চলে যাওয়ার এই দিনে যতটুকু করলে আল্লাহ খুশি হন ততটুকুই করেছি এবং করে যাব ইনশাআল্লাহ। শুরুতেই বলে নেই, আমরা ঘোষণা দিয়ে কখনোই কিছু করিনি।

ঘোষণা দিয়ে করিনি কারণ আমরা আমার বাবুইয়ের কাছ থেকেই একটা জিনিস খুব ভাল করে শিখেছি যে, ‘তোমার ডান হাত দান করলে তোমার বাম হাত তা জানবে না। নিঃশব্দে কাজ করবা’। আল্লাহ পাকও তা পছন্দ করেন। গত বছর আমরা চট্টগ্রামে তার পছন্দের জায়গাগুলোতে ও মাজারগুলোতে তা করেছি।

এইবার পেনডেমিকের জন্য সবকিছু একটু থমকে গেছে। গতবারের মত এইবারও আমরা দুই ভাইবোনের দেশে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পেনডেমিকের কারণে যেহেতু দেশের বাইরে আছি তাই আসা সম্ভব হলো না।’ তিনি আরও লেখেন, ‘আমরা পারিবারিকভাবে বাবুইয়ের পছন্দের জায়গাগুলোতে যেখানে উনি আগেও দিতেন সেই সব জায়গাতেই দোয়া-খায়ের করছি। যেমন আমাদের বাসার পাশের মসজিদে পুরো মাসজুড়ে কোরআন খতম, পারিবারিকভাবে খতম আর এতিমখানায় খাওয়ানো হবে। এছাড়া বাবুইয়ের পছন্দের কয়েকটা এতিমখানায় কিছু জিনিস দিচ্ছি তার নামে। আল্লাহ পাক যেন আমাদের এই দান ও ইবাদত কবুল করে নেন।

তার ভক্তদের কাছেও অনুরোধ থাকবে যারা তাকে অন্তরের গভীর থেকে ভালোবাসেন তারা অন্তত ওই দিন তার জন্য দুই রাকাআত নামাজ পড়ে দোয়া করবেন। আল্লাহ যেন তার জীবন দশায় যেই সব ভাল কাজ করেছেন, যেই সমস্ত দান নিরবে করেছেন- তার উছিলায় আমার বাবুইকে জান্নাত নসিব করেন। আর আমাদের জন্য দোয়া করবেন যেনো আমরা দুই ভাই-বোন আর আমাদের কাছের কয়েকজন মিলে যতদিন বেঁচে থাকবো ততদিন তার জন্য এভাবেই যেন নিঃশব্দে করে যেতে পারি।

তার সব সৃষ্টিকে যেন আমরা রক্ষা করতে পারি। তার জন্য যা যা করার ও যতটুকু করার তা আমরা করেই যাব আমাদের শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত। আমাদের আশা আপনারাও আমাদের এই পথ চলায় সাথে থাকবেন আর বাবুইকে আগের থেকেও বেশি ভালোবাসবেন আর তার জন্য অনেক দোয়া করবেন- শুধু এটাই আমাদের কামনা।’

ঢাকা, ১৭ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।