ব্রাজিলের নেতৃত্বে নেইমারকে চাননা এডমিলসন


Published: 2019-05-20 16:45:38 BdST, Updated: 2019-09-15 19:51:18 BdST

স্পোর্টস লাইভ: ঘরের মাঠে আসন্ন কোপা আমেরিকায় ব্রাজিলের অধিনায়ক হিসেবে নেইমারকে দেখতে চাননা সাবেক বার্সেলোনা ও ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার এডমিলসন। অন্যান্য খেলোয়াড়দের অধিনায়ক হিসেবে অভিজ্ঞতা যাচাইয়ে নেইমারকে এবার এই দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেবার আহবান জানিয়েছেন এডমিলসন।

প্যারিস সেইন্ট-জার্মেই ফরোয়ার্ড নেইমার আরেকটি ইনজুরি আক্রান্ত মৌসুম শেষ করার অপেক্ষায় আছেন। চলতি বছর ঘরের মাঠের কোপা আমেরিকা টুর্নামেন্টের আগে সে কারনেই তার ফিটনেস নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। গত বছর বিশ্বকাপে ব্রাজিলের অধিনায়ক হিসেবে বাড়তি যে দায়িত্ব তার কাঁধে ছিল তাতে তার পারফরমেন্সে কিছুটা হলেও প্রভাব পড়েছে বলে মনে করেন এডমিলসন।

পিএসজি কোচ থমাস টাচেল ক্লাব অধিনায়ক হিসেবে কখনই নেইমারের ওপর বাড়তি দায়িত্ব দেননি। তার পরিবর্তে অপর দুই অভিজ্ঞ ব্রাজিলিয়ান থিয়াগো সিলভা ও মারকুইনহোসের ওপরই আস্থা রেখেছিলেন পিএসজি বস।

বলিভিয়া, ভেনিজুয়েলা ও পেরুর বিপক্ষে কোপা আমেরিকার গ্রুপ পর্বে লড়াইয়ে নামবে স্বাগতিক ব্রাজিল। এডমিলসন মনে করেন অধিনায়ক হিসেবে তিতের অন্য কাউকে বেছে নেয়া উচিত। এ সম্পর্কে এডমিলসন বলেছেন, ‘এই মুহূর্তের সম্ভাব্য সেরা দলটিই কোপার জন্য বেছে নেয়া হয়েছে। এখানে অনেক অভিজ্ঞ খেলোয়াড় আছেন যারা ইতোমধ্যেই অধিনায়কত্ব করেছেন।

এটা একান্তই আমার নিজস্ব মতামত, নেইমারের উপর অধিনায়কের দায়িত্ব দেবার এটা সঠিক সময় নয়। তারপরেও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত তিতেই নিবেন। এখানে বিতর্ক থাকতেই পারে। প্রতিটি পজিশনেই আমাদের বেশ কয়েকজন বিকল্প খেলোয়াড় আছে। এটা স্পষ্ট যে ঘরের মাঠে কোপা আমেরিকা জয়ের বাড়তি একটি চাপ তিতের ওপর রয়েছে।’

ইতোমধ্যেই তিতে কোপা আমেরিকা স্কোয়াড থেকে রিয়াল মাদ্রিদের দুই তারকা মার্সেলো ও ভিনসিয়াস জুনিয়রকে বাদ দিয়েছেন। এছাড়া বাদ পড়াদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন পোর্তো ফুল-ব্যাক এ্যালেক্স টেলেস।

আগামী ১৪ জুন থেকে শুরু হওয়া কোপা আমেরিকার আগে প্রাক টুর্ণামেন্ট প্রীতি ম্যাচে ব্রাজিল কাতার ও হন্ডুরাসের মুখোমুখি হবে।

ঢাকা, ২০ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।