৭ উইকেটে শ্রীলংকাকে হারিয়ে স্বর্ণ জিতলেন সৌম্য-শান্তরা


Published: 2019-12-09 17:43:48 BdST, Updated: 2020-01-25 03:07:59 BdST

স্পোর্টস লাইভ: এবার সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসে স্বর্ণ জিতলো বাংলাদেশ পুরুষ ক্রিকেট দল। সোমবার ৭ উইকেটে শ্রীলংকাকে হারিয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল।নেপালের কীর্তিপুরে টস জিতে প্রথমে বোলিং বেছে নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। ব্যাট হাতে নেমে ভালো শুরুর ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন শ্রীলংকার দুই ওপেনার পাথুম নিশাঙ্কা ও নিশান মাধুশকা।

৪ দশমিত ৪ ওভারেই ৩৬ রান তোলেন তারা। বাংলাদেশের পেসার সুমন খান শ্রীলংকার উদ্বোধনী জুটি ভাঙ্গেন। ১৬ রান করা মাধুশকাকে শিকার করেন তিনি। এরপর একই ওভারে শ্রীলংকার দুই উইকেট তুলে নিয়ে প্রতিপক্ষকে চাপে ফেলে দেন ডান-হাতি পেসার হাসান মাহমুদ। ফলে ৪১ রানে ৩ উইকেট হারায় শ্রীলংকা। এই চাপ থেকে আর ঘুড়ে দাঁড়াতে পারেনি শ্রীলংকা।

ফলে পুরো ২০ ওভার ব্যাট করে মাত্র ১২২ রানে অলআউট হয় লংকানরা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন শাম্মু আসান। এছাড়া নিশাঙ্কা ২২ করে ফিরেন। বাংলাদেশের হাসান ২০ রানে ৩ ও তানভীর ইসলাম ২৮ রানে ২ উইকেট নেন।

জবাবে ভালো শুর করেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার সাইফ হাসান ও সৌম্য সরকার। বলের সাথে পাল্লা দিয়েই রান তুলছিলেন তারা। অষ্টম ওভারে দলীয় ৪৪ রানে ভাঙ্গে বাংলাদেশের প্রথম জুটি। ৪টি চারে ২৮ বলে ২৭ রান করে ফিরে যান সৌম্য।

সৌম্যর বিদায়ে ক্রিজে ওপেনার সাইফের সঙ্গী হন অধিনায়ক নাজমুল। জুটি বেঁধেই মারমুখী মেজাজ দেখান দু’জনে। তাতে বাংলাদেশের জয়ের পথ সহজ হয়ে যায়। দ্বিতীয় উইকেটে ২২ বলে ৩৯ রান যোগ করেন সাইফ-শান্ত।

৩টি চার ও ২টি ছক্কায় ৩০ বলে ৩৩ রান করে আউট হন সাইফ। তার বিদায়ে শান্ত’র সাথে জুটি বেঁধে বাংলাদেশকে জয়ের দিকে এগিয়ে নিতে থাকেন ইয়াসির আলি। কিন্তু দলের জয় থেকে ১৫ দূরে থাকতে আউট হন ইয়াসির। ১টি করে চার-ছক্কায় ১৬ বলে ১৯ রান করেন তিনি।

তবে আফিফ হোসেনকে নিয়ে বাংলাদেশের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন শান্ত। ১১ বল বাকী রেখেই এসএ গেমসে স্বর্ণ জয় নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। ২টি চার ও ১টি ছক্কায় ২৮ বলে অপরাজিত ৩৫ রান করেন শান্ত। ৭ বলে অপরাজিত ৫ রান করেন আফিফ।

ঢাকা, ০৯ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।