পূজার টাকার ভাগ নিয়ে ছাত্রলীগ কর্মী লাশ হলেন


Published: 2020-02-07 20:42:42 BdST, Updated: 2020-04-07 01:05:17 BdST

সিলেট লাইভঃ এবার পূজার টাকা নিয়ে দেখা দিয়েছে দ্বন্দ্ব। এর ফলে প্রাণ হারিয়েছেন ছাত্রলীগের কর্মী। সিলেট নগরীর টিলাগড় এলাকায় পূজার টাকা নিয়ে বিবাদে জড়িয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় অভিষেক দে দ্বীপ নামের এক ছাত্রলীগ কর্মী প্রাণ হারিয়েছেন।

দ্বীপ গ্রীনহিল স্টেট কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সৈকত রায় সমুদ্র নামের এক ছাত্রলীগ কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে নয়টার দিকে ছাত্রলীগ কর্মী সৈকত রায় সমুদ্রের নেতৃত্বে একদল যুবক দ্বীপের উপর হামলে পড়ে।

ওরা এসময় দ্বীপকে আঘাত করে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে যায় তারা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় সিলেট এমএজি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দ্বীপকে মৃত ঘোষণা করেন।

সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই ওমর ফারুক অভিষেক দ্বীপের মৃত্যুর কথা জানিয়েছেন। এলাকাবাসী জানিয়েছেন এদের সকলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে।

ওই ঘটনায় নেতৃত্বদানকারী সৈকত রায় সমুদ্র সিলেট সরকারি কলেজের ছাত্র ও ছাত্রলীগ কর্মী। সে পুলিশি পাহারায় ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এছাড়া নিহত দীপ ও অভিযুক্ত সমুদ্র দুজনই আওয়ামী লীগ নেতা রণজিৎ সরকার গ্রুপের অনুসারী বলে জানা গেছে। এরা সকলেই নানান অপকর্ম করে বেড়াতো।

শাহপরান থানার ওসি আব্দুল কাইয়ুম জানান, পূজার টাকা সংক্রান্ত বিরোধ থেকে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে টিলাগড়ে অভিষেক দে দ্বীপ নামের এক কলেজ ছাত্রকে আঘাত করে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে যায় তারা।

পরে সিলেট এমএজি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দ্বীপকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় সৈকত রায় সমুদ্র নামের এক ছাত্রলীগ কর্মীকে আটক করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল ও হাসপাতাল পরিদর্শন করেছেন এসএমপির ডিসি (দক্ষিণ) সুহেল রেজা। এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় অঘটন ঘটতে পারে বলে আশংকা করছেন এলাকাবাসী।

ঢাকা, ০৭ ফেব্রুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।