শাবিপ্রবির সেই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে প্রাক্তনদের বিবৃতি


Published: 2020-06-17 18:33:43 BdST, Updated: 2020-08-14 16:16:35 BdST

শাবিপ্রবি লাইভঃ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের চতুর্থ বর্ষের (সেশন ২০১৬-১৭) শিক্ষার্থী মাহির চৌধুরীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়েরকৃত মামলার নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা।

২৮৬ জন শিক্ষার্থীর স্বাক্ষরকৃত বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আইন অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয় মামলা করতে পারে যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে জানমালের কেউ ক্ষতি সাধন করে এবং নিরাপত্তাকর্মীরা তা নিয়ন্ত্রণ করতে না পারেন। কিন্তু মাহির চৌধুরীর ফেসবুক পোস্টে এমন কোনও আলামত ছিল না যার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে কোনও ক্ষতি হতে পারে।’

বিবৃতিতে দেয়া দাবিগুলো হলো- 

১) অবিলম্বে মাহির চৌধুরীর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহার করতে হবে।

২) বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ সকলের বাক-স্বাধীনতা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে হবে।

৩) ক্যাম্পাসের যে কোনও ভিন্নমতাবলম্বী শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের যাবতীয় হুমকি থেকে হেফাজত নিশ্চিত করতে হবে। অন্যের দ্বারা প্ররোচিত হয়ে, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সর্বাবস্থায় অভিভাবকসুলভ, নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করতে হবে।

৪) ক্যাম্পাসে সর্বাত্মক গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে।

উল্লেখ্য, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সদ্য প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিককে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কটূক্তি করার অভিযোগে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ১৩ জুন নিজের ফেসবুক ওয়ালে মোহাম্মদ নাসিমকে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেয়। সেই স্ট্যাটাস দেখে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সমালোচনা করে এবং তার শাস্তি দাবি করেন। তার ওই স্ট্যাটাস কুরুচিপূর্ণ উল্লেখ করে ১৫ জুন দুপুরে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. ইশফাকুল হোসেন।

তবে স্ট্যাটাসটি দেওয়ার কিছুক্ষণ পরই ওই শিক্ষার্থী তার ফেসবুক ওয়াল থেকে পোস্টটি মুছে ফেলেন। পাশাপাশি পোস্টটির জন্য ক্ষমা প্রার্থনা ও দুঃখ প্রকাশ করেন।

ঢাকা, ১৭ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//টিআর

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।