আশ্রমের হোস্টেল থেকে স্কুলছাত্রীর লাশ উদ্ধার, আলোচনার ঝড়!


Published: 2021-07-16 19:38:17 BdST, Updated: 2021-09-19 17:49:21 BdST

চট্টগ্রাম লাইভ: আশ্রমের হোষ্টেল। বড় আশা ছিলো পরিবারের। সেখানে থেকেই তাদের মেয়ে বেড়ে উঠবেন। মানুষের মত মানুষ হয়ে ঘুড়ে দাঁড়াবেন মানুষের সেবা নিয়ে। দেখভাল করবে তার বুড়ো মা-বাবাকে। কিন্তু সেই গল্পটার শেষ হতে না হতেই চলে গেল তাদের আদরের সন্তান স্কুলছাত্রী সোনিয়া দাশ (১৬)। কেন সে ভয়ঙ্কর পথে যাত্র শুরু করলো এনিয়ে রহস্যের দানা বাধঁছে পরিবার ও সহপাঠিদের মাঝে। কেউ সঠিক ভাবে মুখ খুলছে না। কি যেন একটা গরমিল খুঁজে বেড়াচ্ছে চারদিকে। তবে পুলিশ নেমেছে তদন্তে। আর তদন্ত শেষে রহস্যের জট খুলবে বলে ওই ছাত্রীর পরিবার ও সহপাঠিদের আশা।

পুলিশ জানায়, চট্টগ্রাম নগরীর প্রবর্তক আশ্রমের হোস্টেল থেকে সোনিয়া দাশ (১৬) নামে এক স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে আশ্রম কর্তৃপক্ষ মোবাইল ব্যবহার করতে না দেয়ায় অভিমান করে এই কিশোরী গলায় ফাঁস দিয়েছে বলে জানা যায়।
তবে ভিন্ন একটি সূত্র বলেছে একজন শিক্ষক ও পুরোহিতের সাথে কি যেন বিষয় নিয়ে রাগ করেছিলেন ওই স্কুল ছাত্রী সোনিয়া। যদিও এখনও বিষয়টি নিয়ে কেউ তেমন কোন কথা বলতে নারাজ।

পুলিশ আরো জানায়, শুক্রবার (১৬ জুলাই) ভোর ৪টার দিকে পাঁচলাইশ থানা এলাকায় অবস্থিত প্রবর্তক সংঘ আবাসিক হোস্টেলে পঞ্চম তলা থেকে পুলিশ এই স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। ভুক্তভোগী এই কিশোরী সাতকানিয়া উপজেলার আমিলাইষ এলাকার লালু দাশের মেয়ে। সে প্রবর্তক উচ্চ বিদ্যালয় থেকে চলতি শিক্ষাবর্ষের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল।

ঘটনার বিষয়ে পাঁচলাইশ থানার ওসি জাহিদুল কবীর মানবজমিনকে বলেন, প্রবর্তক কর্তৃপক্ষের ফোন পেয়ে পুলিশ এই কিশোরীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে পরিবারের সাথে অভিমান করে সে আত্মহত্যা করেছে। তবে ময়নাতদন্ত শেষে বিস্তারিত বলা যাবে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, প্রবর্তক সংঘের পরিচালিত এই আবাসিক হোস্টেলে মোবাইল ফোন ব্যবহার নিষিদ্ধ ছিলো। তবে এই শিক্ষার্থীরা গোপনে একটি মোবাইল ব্যবহার করে। সোনিয়াও করতো। বিষয়টি নজরে আসলে গত এপ্রিল মাসে সোনিয়ার কাছ থেকে প্রবর্তক কর্তৃপক্ষ ফোনটি নিয়ে নেয়।

এনিয়ে হোস্টেল কর্তৃপক্ষ ও পরিবারের ওপর তার ক্ষোভ ছিলো সেই ক্ষোভ থেকেই এই কিশোরী শেষ পর্যন্ত গলায় ফাঁস দিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পুলিশ আরো বলেছে এর নেপথ্যে আরো অন্যকিছু থাকতে পারে। তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। নিহতের স্বজনরা বলেছেন বিষয়টি ভাল তদন্ত করে দেখা দরকার। এনিয়ে চট্রগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় নানান সমালোচনা ও তর্কযুদ্ধ চলছে।

ঢাকা, ১৬ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এআইটি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।