বইমেলায় ঢাবির ১২ শিক্ষার্থীর বই


Published: 2021-03-25 16:03:53 BdST, Updated: 2021-05-09 00:38:36 BdST

মনিরুজ্জামান, মনজুর হোছাইন, ঢাবি: অনিশ্চিয়তার ঘের কেটে অবশেষে শুরু হয়েছে বাঙালি প্রাণের স্পন্দন অমর একুশে বইমেলা-২০২১। এ পর্যন্ত ৬ দিনে নতুন বই এসেছে ৪৯৭ টি। বই লেখায় পিছিয়ে নেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা লিখেছেন বেশকিছু বই।

বইয়ের নাম 'মানবতাবাদী শকুন'। বইটি প্রকাশ করেছে গ্রন্থিক প্রকাশনী। লিখেছেন ঢাবির প্রাণিবিদ্যা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী রবিউল আওয়াল।

মানবতাবাদী শকুন

 

লেখক বলেছেন, বইটিতে সমাজের শ্রেণিবৈষম্য, জীবনবোধ, প্রেম,দোহকে দেখনোর চেষ্টা করেছে।

উপন্যাসের নাম 'জোৎস্না রাতের রক্তবিলাশ'। বইটি প্রকাশ করেছে ঘাসফুল প্রকাশনী। লিখছেন ঢাবির প্রাণিবিদ্যা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী তাসমীম দিসা। পাঁচটা বিষয়ের উপর লেখা এই উপন্যাসের প্লট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে নিয়ে এবং উপন্যাসটটিও ঢাবিকে উৎসর্গ করা হয়েছে।

জোৎস্না রাতের রক্তবিলাশ

 

বইয়ের নাম 'তারুণ্যের জয়ধ্বনি'। বইটি প্রকাশ করেছে পরিলেখ প্রকাশনী। লিখেছেন ঢাবির ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী মুহাম্মদ হযরত আলী।

তারুণ্যের জয়ধ্বনি

 

বইটির বিষয়ে লেখক বলেছেন, বইটিতে মুসলিম জাতির গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস তুলে ধরে বর্তমানে তাদের অধঃপতনের কারণ এবং তা থেকে উত্তরণে তরুণদের ভূমিকা আলোচনা করা হয়েছে।

বইয়ের নাম 'গণকের বিয়াল্লিশ গণনা'। বইটি প্রকাশ করেছে ঘাসফুল প্রকাশনী। লিখেছেন ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী মাহিন ফারিজ।

গণকের বিয়াল্লিশ গণনা

 

তিনি বলেছেন, প্রেম, দর্শন, ছায়াগল্প ইত্যাদির সংমিশ্রণে বইটি লেখা তার। ৭২ পৃষ্ঠার বইটিতে ৪২ টি কবিতা স্থান পেয়েছে।

বইয়ের নাম 'অন্য ভুবনে'। বইটি প্রকাশ করেছে বাংলার প্রকাশন লিখেছেন ঢাবির বাংলা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী জুলফিকার হোসেন নাহিদ।

অন্য ভুবনে

 

তিনি জানিয়েছেন, এটি তার জীবনের প্রথম বই 'বইটিতে ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের জীবন বৈচিত্র্যকে এক-এক করে দশটি গল্পে তুলে ধরা হয়েছে।

প্রত্যাশা হোসেনের নতুন বই 'মেঘপিয়ন'। বইটি প্রকাশ করেছে ভিন্নমাত্রা প্রকাশনী। তিনি পালি এন্ড বুদ্ধিস্ট স্টাডিজ বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। বইটি আমাদের চারপাশের মিথ্যা ধ্যান-ধারণা, কুসংস্কার, সমাজ, বাস্তবতা ইত্যাদি বিষয় নিয়ে লেখা।

মেঘপিয়ন

 

বইয়ের নাম 'আত্মার চুক্তিনামা'। বইটি প্রকাশ করেছে সাইবার পাবলিকেশন। লিখেছেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের মাষ্টাসর্সের শিক্ষার্থী তাহমিদ তাজওয়ার খান।

চুক্তিনামা

 

বইয়ের নাম 'জটিল সংখ্যার সমাধান'। বইটি প্রকাশ করেছে কারুবাক প্রকাশনী। লিখেছেন ফলিত গণিত বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মোকাদ্দেস উদ্দিন আহমেদ। বইটিতে গণিতের অন্যতম অধ্যায় জটিল সংখ্যা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

জটিল সংখ্যার সমাধান

 

বইয়ের নাম 'ডাহুক'। লিখেছেন অর্থনীতি বিভাগ মাস্টার্সের শিক্ষার্থী সঞ্জয় দাস। বইটি প্রকাশ করেছে নৈঋতা ক্যাফে। কাব্যগ্রন্থে স্থান পেয়েছে তার নিজস্ব ৩৫ টি কবিতার পাশাপাশি ১০ টি অনূদিত কবিতা।

ডাহুক

 

বইয়ের নাম 'ধ্বংসতত্ত্ব'। বইটি প্রকাশ করেছে ভূমি প্রকাশ। লিখেছেন উইমেন এন্ড জেন্ডার স্টাডিজ বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ফাইয়াজ ইফতি। বইটি প্রকাশ করেছে ভূমি প্রকাশ। বিশ্ববিদ্যালয় জীবণের বিভিন্ন অভিজ্ঞতা ছাড়াও বইটিতে স্থান পেয়েছে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কে কিছু কথা।

ধ্বংসতত্ত্ব

 

বইয়ের নাম 'ফসিল দ্বীপের ডাইনোসর'। বইটি প্রকাশ করেছে প্রসিদ্ধ পাবলিশার্স। লিখেছেন সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী সুশীল মালাকার।

ফসিল দ্বীপের ডাইনোসর

 

লেখক বলেছেন, বইটিতে প্রায় সাড়ে ৬ কোটি বছর আগে পৃথিবী থেকে হারিয়ে যাওয়া ডাইনোসর গোষ্ঠীর গল্প বলা হয়েছে।

বইয়ের নাম 'অযাচিত ঘন্টাধ্বনি'। বইটি প্রকাশ করেছে পাললিক সৌরভ প্রকাশনী। লিখেছেন সংগীত বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থীর তুষার মাহমুদ।

ঢাকা, ২৫ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।