ইবিতে করোনা টিকার নিবন্ধন শুরু, বাদপড়াদের ফের নিবন্ধনের সুযোগ


Published: 2021-07-11 19:01:23 BdST, Updated: 2021-09-20 21:06:53 BdST

আজাহার ইসলাম, ইবি : করোনা টিকা গ্রহণের লক্ষ্যে ১০ দিন পর ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে নিবন্ধন শুরু হয়েছে। একইসাথে ইউজিসির নির্দেশনা অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে নিবন্ধনকৃত শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। তালিকায় যেসব শিক্ষার্থীর নাম উল্লেখ নেই তাদের পুনরায় নিবন্ধনের করতে নির্দেশনা দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

রবিবার (১১ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান ক্যাম্পাসলাইভকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ‘এর আগে যাদের নিবন্ধন সঠিক ছিল তাদের তালিকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। শুধু জাতীয় পরিচয়পত্রধারী শিক্ষার্থীরা সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করতে পারবে। তালিকায় যাদের নাম নেই অথবা কোনো শিক্ষার্থী নিবন্ধন করে না থাকলে তাদের নির্ধারিত গুগল ফর্মে নিবন্ধন করতে বলা হচ্ছে। সঠিক তথ্য দিয়ে ফর্ম পূরণ করলে তাদের বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

এর আগে ১ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধনের জন্য নির্দেশনা দেয় বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। এরপর ২ জুলাই শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে (জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বরসহ) নিবন্ধনের নির্দেশনা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

নির্দেশনার পরপরই শিক্ষার্থীরা নিবন্ধনের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এনিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে ৫ জুলাই নিবন্ধনকৃত শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রকাশের নির্দেশনা দেয় ইউজিসি। নির্দেশনার ৬ দিন পর আজ রবিবার (১১ জুলাই) তালিকা প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের পরিচালক প্রফেসর ড. আহসানুল আম্বিয়া গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ওয়েবসাইটে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সঠিক তথ্য সম্বলিত নিবন্ধনধারী শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রকাশ করেছি। এ তালিকা থেকে যদি কোনো শিক্ষার্থী বাদ যান, তাহলে আবারও নিবন্ধনের সুযোগ থাকছে।’

প্রসঙ্গত, ২ মার্চ ইউজিসির নির্দেশনা অনুযায়ী আবাসিক শিক্ষার্থীদের করোনার ভ্যাক্সিন নিশ্চিত করতে তালিকা চেয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। পরে ১৪ মার্চ আবাসিক ও অনাবাসিক সকলের তালিকা চেয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তবে রেজিস্ট্রেশন কম সম্পন্ন হওয়ায় তৃতীয় বার ২৫ মে পর্যন্ত সময় বৃদ্ধি করে।

সর্বশেষ চতুর্থ বারেরমতো ৩০ মে পর্যন্ত রেজিস্ট্রেশনের মেয়াদ বৃদ্ধি করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। চার বার সময়সীমা বৃদ্ধি করার পরেও টিকা নিতে ৫৭ ভাগ শিক্ষার্থী নিবন্ধন করেনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫ হাজার ৩৮৪ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে নিবন্ধন করেছিল ৬ হাজার ৬০৭ জন শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে যাদের তথ্যগত ভুল রয়েছে যেসব শিক্ষার্থী বাদে ওয়েবসাইটে নতুনভাবে ৫ হাজার ৫৭৭ জন শিক্ষার্থীর একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা, ১১ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।