দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্য থেকে মহাশ্বেতা দেবীর গল্প বাদ


Published: 2021-08-26 09:21:32 BdST, Updated: 2021-10-21 12:11:45 BdST

লাইভ ডেস্ক: দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি পাঠ্যক্রম থেকে আচমকা বাদ পড়েছে বাংলা ভাষার খ্যাতিমান লেখিকা মহাশ্বেতা দেবীর ছোটগল্প ‘দ্রৌপদী’। ১৯৯৯ সাল থেকে পাঠ্যক্রমের অন্তর্ভুক্ত ছিল গল্পটি। ‘দ্রৌপদী’র বদলে মহাশ্বেতার অন্য কোনও গল্পও নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ রয়েছে। বাদ পড়েছেন দু’জন দলিত লেখকও। বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের বৈঠকে এ নিয়ে প্রতিবাদ জানান শিক্ষকদের একাংশ। খবর আনন্দবাজার অনলাইনের।

বৈঠকে কাউন্সিলের ১৫ জন সদস্য ওভারসাইট কমিটির বিরুদ্ধে তাদের প্রতিবাদপত্র জমা দেন। তাদের অভিযোগ, এলওসিএফ (লার্নিং আউটকামস বেসড কারিকুলাম ফ্রেমওয়র্ক)-এর পঞ্চম সেমিস্টারের ইংরেজি পাঠ্যক্রমে ‘বর্বর আক্রমণ’ চালানো হয়েছে। প্রথমে বাদ দেওয়া হয়েছে দুই দলিত লেখক বামা আর সুকর্তারিণীর লেখা। তার বদলে আনা হয়েছে ‘উচ্চবর্ণীয়’ রমাবাইকে।

তারা বলেন, তারপরই ‘কমিটি আচমকা কোনও কারণ না দেখিয়ে ইংরেজি বিভাগকে বলেছে, মহাশ্বেতার দ্রৌপদী গল্পটি বাদ দিতে। শুধু তাই নয়, জ্ঞানপীঠ, পদ্মবিভূষণ, সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কারে সম্মানিত মহাশ্বেতার অন্য কোনও লেখাও তারা গ্রহণ করতে রাজি হয়নি।’

তাদের অভিযোগ, ইতিহাস, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, সমাজবিদ্যার মতো বিষয়েও সিলেবাস কমিটির সঙ্গে কথা না বলেই পাঠ্যক্রম বদল করা হচ্ছে।

ঢাকা, ২৬ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।