বঙ্গবন্ধু ৪৪তম জাতীয় অ্যাথলেটিকস্ইবির দুই শিক্ষার্থীর স্বর্ণ, এক শিক্ষার্থীর ব্রোঞ্জ জয়


Published: 2021-01-18 18:53:28 BdST, Updated: 2021-03-02 14:35:57 BdST

ইবি লাইভঃ মুজিববর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু ৪৪তম জাতীয় অ্যাথলেটিকস’ প্রতিযোগিতায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) দুই শিক্ষার্থী স্বর্ণপদক ও এক শিক্ষার্থী ব্রোঞ্জ জয় করেছেন।

সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের শারীরিক শিক্ষা বিভাগের পরিচালক ড. মোহাম্মদ সোহেল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্বর্ণপদক জয়ী দুই শিক্ষার্থী হলেন- ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের ডিসকাস থ্রো ইভেন্টে জাফরিন আক্তার ও একই বিভাগের একশ মিটার হার্ডেলস, একশ মিটার রিলে ও চারশ মিটার রিলে এই তিন ইভেন্টে ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের আনিকা রহমান তামান্না। এছাড়া একই বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের রিংকি খাতুন লংজাম্প ইভেন্টে ব্রোঞ্জ পদক জয় করেছেন।

স্বর্ণপদক জয়ী জাফরিন আক্তার

 

শারীরিক শিক্ষা বিভাগ জানায়, ১৫ জানুয়ারি থেকে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এতে জাফরিন আক্তার ডিসকাস থ্রো ইভেন্টে প্রথম ও আনিকা রহমান তামান্না মোট তিন ইভেন্টে প্রথম স্থান অধিকার করে তিন স্বর্ণপদক জয়লাভ করেন। এছাড়া রিংকি খাতুন লং জাম্প ইভেন্টে তৃতীয় স্থান অধিকার করে ব্রোঞ্জ পদক জয় করেন।

স্বর্ণপদক জয়ী আনিকা রহমান তামান্না

 

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শারীরিক শিক্ষা বিভাগের পরিচালক ড. মোহাম্মদ সোহেল বলেন, ‘এটি আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য গর্বের বিষয়। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলোয়াড়রা দেশ-বিদেশে সফলতা অর্জন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম কুড়িয়ে আনছে। তাদের এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে বলে আশা রাখি। আমি তাদের উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করছি।’

ব্রোঞ্জ পদক জয়ী রিংকি খাতুন

 

উল্লেখ্য, এবারের ‘বঙ্গবন্ধু ৪৪তম জাতীয় অ্যাথলেটিকস’ প্রতিযোগিতায় পুরুষ বিভাগে ২২ ও মহিলা বিভাগে ১৪টিসহ মোট ৩৬টি ইভেন্টে ৪৫০ জন অ্যাথলেট অংশ নেন। দেশের ৬৪ জেলা, আটটি বিভাগ, বিশ্ববিদ্যালয়, শিক্ষা বোর্ড, বিকেএসপি, বিজেএমসি এবং অ্যাফিলিয়েটেড সামরিক ও বেসামরিক সংস্থার অ্যাথলেটরা অংশ নেন।

ঢাকা, ১৮ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এআই//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।