ইবির হলে থাকতে পারবে না ভর্তিচ্ছুরা, বিকল্প ব্যবস্থার দাবি


Published: 2021-10-16 11:11:27 BdST, Updated: 2021-12-02 22:06:11 BdST

আজাহার ইসলাম, ইবি: আগামীকাল (১৭ অক্টোবর) থেকে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে। যার অন্তর্ভুক্ত রয়েছে কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ও। এসময় আবাসিক হলগুলোতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের থাকতে দেওয়া হবে না। ভর্তিচ্ছুদের নিজ আবাসন নিজেদেরই নিশ্চিত করতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রক্টর। হলে থাকার ব্যবস্থা না হলেও বিকল্প ব্যবস্থার দাবি জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ভর্তিচ্ছুরা।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, এবারের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্র হিসেবে ইবিতেও ১৭ ও ২৪ অক্টোবর এবং ১ নভেম্বর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ ইউনিট (বিজ্ঞান), বি ইউনিট (মানবিক) ও সি ইউনিটে (ব্যবসায়) যথাক্রমে ৭ হাজার ৮৪ জন, ৫ হাজার ২০ জন ও ১ হাজার ৯৯ জন ভর্তিচ্ছু লড়বেন। প্রত্যেকদিন দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত এক শিফটে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া ধর্মতত্ত্ব ও ইসলামী শিক্ষা অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা ‘ডি’ ইউনিটের আওতায় আগামী ২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। দেশের অন্য কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে এ অনুষদ না থাকায় স্বতন্ত্রভাবে এর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। আগামীকাল (১৭ অক্টোবর) পর্যন্ত এর আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হবে।

এদিকে প্রতিবছর ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষ্যে ক্যাম্পাসে উৎসবমূখর পরিবেশ থাকলেও এবারে তেমন কোন ছাপ নেই। নেই বাড়তি কোন আয়োজন। তবে কর্তৃপক্ষের দাবি, একসময়ে পরীক্ষা না হয়ে কয়েক দিন পর পর পরীক্ষা হওয়ায় এবার বাড়তি কিছুর আয়োজন করা হচ্ছে না। তবে প্রতিবারের মতো এবারও ইবি থানার সামনে তৈরি করা হবে অভিভাবক কর্ণার। সেই সাথে প্রধান ফটকে শিক্ষার্থীদের মাস্ক বিতরণসহ যথাসম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভিতরে প্রবেশ করানো হবে৷

এদিকে ভর্তি পরীক্ষার দিনে ক্যাম্পাসে ভ্রাম্যমান আদালত ও একটি মেডিকেল টিম থাকবে। সেই সাথে শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র রাখতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে একটি হেল্প ডেস্ক বসানো হবে। এছাড়া পরীক্ষার সময়কালে নিরাপত্তা জোরদার করতে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ দুই জেলার ডিসি, এসপি ও র‌্যাব-১২ কে চিঠি দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ।

ঠাকুরগাঁও থেকে আসা ভর্তিচ্ছু নাদিম মাহমুদ বলেন, ‘প্রায় ১০ ঘন্টার পথ পাড়ি দিয়ে ইবিতে পরীক্ষা দিতে যেতে হবে। কেন্দ্র দূরে হওয়ায় আবাসন নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছি। হলে থাকাই আমার কাছে নিরাপদ মনে হয়। হলে থাকার ব্যবস্থা না হলে আমাদের জন্য বিকল্প ব্যবস্থা করা হোক।’

এ বিষয়ে প্রক্টর প্রফেসর ড. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতির কারণে ভর্তিচ্ছুদের হলে না থাকতে দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থীদের আবাসন নিজেদেরই নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়া ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা জোরদার করতে সকল প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।’

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভাপতি ভিসি প্রফেসর ড. শেখ আবদুস সালাম গণামাধ্যমকে বলেন, ‘পরীক্ষাগুলো সুষ্ঠুভাবে নিতে কয়েকটি কমিটি কাজ করছে। পরীক্ষায় যেন কোন প্রকার কালিমা না লাগে সেরকমভাবে আমরা প্রস্তুতি নিয়েছি। আশা করি সকলের সহযোগিতায় সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষাগুলো শেষ করতে পারবো।’

ঢাকা, ১৬ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।