বশেফমুবিপ্রবিতে সেশনজটের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পরিকল্পনা


Published: 2021-06-27 02:03:51 BdST, Updated: 2021-09-28 11:38:25 BdST

বশেফমুবিপ্রবি লাইভ: সেশনজটের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেফমুবিপ্রবি)। বিশ্ববিদ্যালয়ের ষষ্ঠ সিন্ডিকেট সভায় নানান পরিকল্পনা নেয়া হয়। শনিবার (২৬ জুন) ঢাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের লিয়াজোঁ অফিসের সম্মেলনকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এ সভা আয়োজন করা হয়। সভায় ২০২১-২০২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট এবং ২০২০-২০২১ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট অনুমোদন করা হয়। শুরুতে উপাচার্য শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন। পরে সিন্ডিকেটের সচিব বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার খন্দকার হামিদুর রহমান সভার বিভিন্ন এজেন্ডা উপস্থাপন করেন।

সভায় ভিসি অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন, চতুর্থ শিল্পবিপ্লব উপযোগী দক্ষ ও যোগ্য জনশক্তি তৈরিতে উপযোগী বিশ্ববিদ্যালয় বিনির্মাণে বিভিন্ন কর্মপরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা বর্তমানে মেলান্দহে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছি। সেখানে শিক্ষার্থীদের আবাসিক হল সংস্কার ও সম্প্রসারণ, একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবন সংস্কারসহ প্রাথমিকভাবে কিছু অবকাঠামোগত উন্নয়ন কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে।

ভিসি আরো বলেন, ভবিষ্যতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপিপি পাস হলে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী যুগোপযোগী, আধুনিক ও পরিবেশবান্ধব একটি উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার কথা ব্যক্ত করেন প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ। তিনি আরো বলেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে এক বছর ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাভাবিক কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হয়েছে।

তবে অনলাইন ও অফলাইনের সমন্বয় সাধনের মাধ্যমে যাবতীয় শিক্ষা কার্যক্রম সচল রাখা হয়েছে। সেশনজটের ঝুঁকি মোকাবিলায় শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে। এই দুর্যোগ মোকাবিলায় সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ধৈর্য, সাহস ও সঠিক পরিকল্পনায় সমন্বিত প্রচেষ্টা চালানোর আহ্বান জানান তিনি।

এদিকে বশেফমুবিপ্রবি সিন্ডিকেট সদস্য আলহাজ মির্জা আজম এমপি, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. এম রোস্তম আলী, ট্রেজারার মোহাম্মদ আবদুল মান্নান, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) কাজী মনিরুল ইসলাম, ঢাকা প্রযুক্তি ও প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. আবু নঈম শেখ, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের যুগ্ম-সচিব সৈয়দ আলী রেজা, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের (বাজেট-১) যুগ্ম-সচিব সিরাজুন নূর চৌধুরী, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের যুগ্ম-সচিব মো. আখতারুজ্জামান, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব মো. মঈনুল ইসলাম তিতাস এবং সিএসই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মাহমুদুল আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও বশেফমুবিপ্রবি সিন্ডিকেট সদস্য ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. মোস্তাফিজুর রহমান খান, লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের যুগ্ম-সচিব মো. রফিকুল হাসান ভার্চুয়ালি সভায় যুক্ত ছিলেন বলে জানাগেছে।

ঢাকা, ২৬ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।