40370

ইআরবি ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন

ইআরবি ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন

2021-03-07 20:22:09

ইআরবি লাইভ: ঐতিহাসিক ৭ মার্চ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানে স্বাধীনতার আহ্বান সংবলিত ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন। ২০১৭ সালে বঙ্গবন্ধুর এই ভাষণকে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেসকো বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। ভাষণের দিনটি এবার প্রথমবারের মতো জাতীয় দিবস হিসেবে উদযাপন করা হচ্ছে।

ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করা হয়েছে। ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তনে আলোচনা সভা, ডকুমেন্টারী প্রদর্শনী, কবিতা পাঠ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আহসান উল্লাহ।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার এসএম এহসান কবীর, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর এস. এম. গাউসুল আজম। আলোচনা সভার সভাপতিত্ব করেন ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এএস মাহমুদ।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আহসান উল্লাহ বলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এই ভাষণ শুধু ভাষণ নয় বরং একটি ইতিহাস, একটি উপন্যাস, একটি মহাকাব্য। এ ভাষণের মুল সুর যারা হৃদয়ে ধারণ করবে তারা হয়ে উঠবে আত্মত্যাগী ও দেশের জন্য জীবন উৎসর্গকারী মহান মানুষ। জাতির পিতার জীবন-কর্ম, তাঁর ভাষণ, তাঁর চিন্তা দর্শন বিশ্বব্যাপী সমাদৃত। জাতির পিতার ভাষণ শুনলে আমাদের রক্ত টগবগ করে উঠে। আমরা তাঁর দেখানো পথে এগিয়ে চলবো। তাঁরই সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক দেশের জন্য আত্মত্যাগ করবো। এই হোক আমাদের প্রত্যয়।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার এসএম এহসান কবীর বলেন আজ ৭ মার্চ, জাতীয় দিবস যা আনুষ্ঠানিকভাবে উদযাপিত হচ্ছে সমগ্র দেশব্যাপী। প্রায় ১৮/১৯ মিনিটের এ ভাষণে স্বাধীনতার ঘোষণা বিষয়ে সকল দিক নির্দেশনাই উঠে এসেছিল। এ ঘোষণার মাধ্যমে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি জাতিকে সশস্ত্র বাঙালি জাতিতে রূপান্তর করেছিলেন, স্বাধীনতার বীজ বপন করেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ আজও আমাদের তথা সমগ্র জাতিকে উদ্দিপ্ত করে। এ ঐতিহাসিক ভাষণটি স্থান করে নিয়েছে বিশ্ব দরবারে।

আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) ড. মোঃ রফিক আল মামুন, উপ-রেজিস্ট্রার ড. মোঃ আবু হানিফা, অ্যাসিস্ট্যান্ড প্রফেসর ড. জাভেদ আহমাদ, সহকারী রেজিস্ট্রার ফাহাদ আহমদ মোমতাজী, সহকারী পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) মোঃ জিয়াউর রহমান, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ ইআবি শাখার নেতৃবৃন্দ।

 

ঢাকা, ০৭ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

প্রধান সম্পাদক: আজহার মাহমুদ
যোগাযোগ: হাসেম ম্যানসন, লেভেল-১; ৪৮, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, তেজগাঁ, ঢাকা-১২১৫
মোবাইল: ০১৬৮২-৫৬১০২৮; ০১৬১১-০২৯৯৩৩
ইমেইল:[email protected]