42130

রশিতে ঝুলে ফেরিতে ওঠা, তবুও যেতে হবে বাড়ি!

রশিতে ঝুলে ফেরিতে ওঠা, তবুও যেতে হবে বাড়ি!

2021-05-09 00:13:40

লাইভ প্রতিবেদক: তবুও যেতে হবে। উপায় নেই। কোন বাঁধা মানছেই না ঘরমুখো মানুষ। সে এক ভিন্ন চিত্র। নিজের চোখে না দেখলে বিশ্বাস হবে না। এ কেমন প্রেম। এ কেমন ভালবাসা। নাড়ির টান। করোনাকালীন সময়ে চলাচল সীমিত রাখতে দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকলেও ফেরিতে উপচেপড়া মানুষের ভিড় দেখা গেছে।

ফেরিতে কাণায় কাণায় মানুষে পরিপূণ থাকায় প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস কিংবা পিকআপ ওঠার কোনো খালি জায়গা নেই। শুধু তাই নয়, ফেরিতে ওঠার জন্য দীর্ঘক্ষণ ফেরির পন্টুনের মুখে হাজার হাজার মানুষ দাঁড়িয়ে আছেন।

অনেকে পন্টুন দিয়ে ফেরিতে ওঠার সুযোগ না পাওয়ায় বিকল্প পথ হিসেবে রশিতে ঝুলে ফেরিতে উঠছেন। করোনা মহামারির সময়ে নাড়ির টানে শহর ছেড়ে গ্রামে যাওয়ার মুহূর্তে রশিতে ঝুলে ফেরিতে ওঠার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ফেসবুকে ছবি পোস্ট দিয়ে জাকির হোসেন নামে একজন লিখেছেন- কোনো উপায়ে আমাদের ঈদযাত্রা বন্ধ করা যাবে না।

কোন বাঁধা মানছেই না ঘরমুখো মানুষ।

 

আমরা বাড়ি যাবোই। সারা দেশে সরকারের নির্দেশনা থাকলেও আপনজনদের সঙ্গে ঈদ উদযাপনসহ নানা কারণে ঈদের এক সপ্তাহ আগে থেকেই ফেরিতে ভিড় হয়েছে। গাদাগাদি করে ফেরি পারাপার হওয়ায় সেখানে কোনো ধরনের স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালিত হতেও দেখা যায়নি।

ঢাকা থেকে খুলনার উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন এমন এক যাত্রী মমিনুর রহমান বলেন, লকডাউনে লঞ্চ, ট্রেন ও স্পিডবোড বন্ধ থাকায় ফেরিতে যাত্রীর চাপ অনেক বেশি। ফেরিতে গাড়ি ওঠানোর জন্য দুপুর ১২টা পর্যন্ত অপেক্ষা করেছি। তবে যাত্রীদের জন্য কোনোভাবেই গাড়ি ফেরিতে ওঠানো সম্ভব হলো না। ফেরির মধ্যে একে অপরের গায়ের সঙ্গে গা লাগিয়ে আসতে হলো।

ফেরিতে উপচেপড়া মানুষের ভিড়

 

বিআইডব্লিউটিসির বাংলাবাজার ফেরিঘাট সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সকাল থেকেই দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলার যাত্রীদের চাপ রয়েছে। হাজার হাজার যাত্রী ঈদের আগেভাগেই বাড়ি ফিরতে শুরু করেছেন। নৌরুটে রোরোসহ ১৪টি ফেরি চলাচল করছে। তবে যাত্রীদের সংখ্যা বেশি থাকায় ফেরিতে গাড়ি অপেক্ষাকৃত কম পার হচ্ছে।

ফেরিতে গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গা থেকে শুরু করে যাত্রীদের বসার জায়গাসহ সর্বত্র ছিল উপচেপড়া ভিড়। তি পরিমান জায়গা নেই ফেরিতে।

ঢাকা, ৮ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)// এআইটি

প্রধান সম্পাদক: আজহার মাহমুদ
যোগাযোগ: হাসেম ম্যানসন, লেভেল-১; ৪৮, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, তেজগাঁ, ঢাকা-১২১৫
মোবাইল: ০১৬৮২-৫৬১০২৮; ০১৬১১-০২৯৯৩৩
ইমেইল:[email protected]