ভাবি: নারী নির্যাতনের মামলায় গ্রেফতার ছাত্রলীগ নেতা


Published: 2020-11-06 16:14:28 BdST, Updated: 2021-01-16 05:27:47 BdST

ব্রাহ্মণবাড়িয়া লাইভ: অবশেষে ফেঁসে গেলেন ছাত্রলীগ নেতা। আপন ভাবীর মামলায় তিনি এখন কারাগারে। মামলাটি যেনতেন নয়, এটি নারী নির্যাতনের মামলা। নারী নির্যাতনের অভিযোগে ভাবির করা মামলায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এসএম মাহবুব হোসেন এখন জেল হাজতে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, শুক্রবার ভোরে বিজয়নগর উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের ভিটিদাউদপুর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে মাহবুবকে গ্রেফতার করা হয়। গত ৪ আগস্ট মাহবুরের বড় ভাই জাকির হোসেনের স্ত্রী রেহানা আক্তার তার স্বামী, দেবর ও শাশুড়িসহ ছয়জনকে আসামি করে আদালতে মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলার আসামিরা হলেন, মাহবুব হোসেন, জাকির হোসেন, মোস্তফা হোসেন, নূরানী বেগম, শমলা খাতুন ও আইরিন আক্তার। বিজয়নগর থানার ওসি আতিকুর রহমান জানান, আদালত থেকে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করার প্রেক্ষিতে মাহবুবকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিষয়টি ছিলো অনেকটাই ওপেন সিক্রেট।

ওই মামলার বাদী রেহেনা আক্তার বলেন, আমার স্বামী জাকির হোসেন তার নিজের পছন্দে আমাকে বিয়ে করেন। কিন্তু তার পরিবারের লোকজন আমাকে মেনে নিতে পারেনি। আমার স্বামী একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি হওয়ায় বিয়ের পর থেকেই আমাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার জন্য আমার ওপর নির্যাতন শুরু হয়।

সবকিছু জেনেও আমার স্বামী নির্যাতনের প্রতিবাদ করেনি। তিনি বলেন, সম্প্রতি আমাকে রাখার জন্য বাড়িতে আলাদা একটি ঘর কেরে দেন আমার স্বামী। এরপর থেকে আমার ওপর নির্যাতন আরও বাড়তে থাকে। আমি ঘরে ঢুকতে পারিনি, আমাকে সবাই মিলে বের করে দিয়েছে। আমি ওই বাড়িতে ঠিকমত খেতে ও চলাফেরা করতে ছিলো নানান বাঁধা। তিনি আরো বলেন, পরে আমি বাধ্য হয়ে মামলাটি দায়ের করেছি।

ঢাকা, ০৬ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।