কাল সকালেই খুলছে রাবির হল


Published: 2021-10-16 13:00:14 BdST, Updated: 2021-12-02 21:04:46 BdST

রাবি লাইভ: করোনায় সংক্রামনের কারণে দীর্ঘ দেড় বছর বন্ধ থাকার পর আগামীকাল রোববার (১৭ অক্টোবর) খুলবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আবাসিক হল। সেইসাথে ২১ অক্টোবর থেকে শুরু হবে সশরীরে ক্লাস। অন্তত একডোজ টিকা গ্রহণ সাপেক্ষে কাল সকাল ১০টা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে হলে উঠতে পারবেন তারা। এরই মধ্যে প্রিয় ক্যাম্পাসে আসতে শুরু করেছেন শিক্ষার্থীরা। গত ৩০ সেপ্টেম্বর রাবির একাডেমিক কাউন্সিল সভায় সিদ্ধান্ত হয়, অন্তত এক ডোজ টিকা নেওয়ার প্রমাণপত্র ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈধ পরিচয়পত্র থাকা সাপেক্ষে শিক্ষার্থীদের ১৭ অক্টোবর থেকে হলে তোলা হবে।

জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭ টি আবাসিক হলো সংস্কার কাজের জন্য বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) থেকে ৫ কোটি ১০ লক্ষ টাকা বাজেট বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। সরজমিনে হলগুলোতে ঘুরে তেমন বড় ধরনের সংস্কারের দেখা মেলেনি। মাত্র কয়েকটি হলে বসানো হয়েছে হাত ধোয়ার বেসিন। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় হলের ভেতরে রিডিং রুম, ডাইনিং, ওয়াশরুম ধুলো ময়লা জমে আছে।

তবে এসব টুকটাক কাজগুলো সংষ্কার করা হলেও অকেজো হয়ে থাকা বিদ্যুৎ এবং পানির সংযোগ লাইনের সংস্কার কাজ চলমান রয়েছে। হলগুলোতে দেয়াল চুনকামের কাজসহ প্রয়োজনীয় অনেক সংস্কার কাজ এখনো সম্পন্ন হয়নি। এমন বাস্তবতার মধ্যে কাল খোলা হচ্ছে হলগুলো।

এদিকে, শিক্ষার্থীদের অন্তত একডোজ টিকা গ্রহণ না করলে ক্লাস ও হলে প্রবেশ করতে না দেয়ার বিষয়টি বিবেচনায় রেখে শিক্ষার্থীদের শতভাগ টিকা গ্রহণ নিশ্চিত করতে ক্যাম্পাসেই বুথ স্থাপন করে টিকা প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। আগামীকাল ১৭ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ১টা পর্যন্ত শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে (টিএসসিসি) টিকার প্রথম/দ্বিতীয় ডোজ প্রদান কার্যক্রম শুরু হবে যা চলবে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত।

এজন্য প্রথম ডোজের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের অবশ্যই রেজিস্ট্রেশনের কপি এবং দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণের জন্য প্রথম ডোজের প্রমাণপত্র সঙ্গে নিয়ে আসতে বলা হয়েছে। একই সাথে যারা এখনো টিকা গ্রহণের রেজিস্ট্রেশন করেনি তাদের হলে উঠার বা ক্লাস শুরুর আগে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে ক্লাস ও হলে অবস্থান করতে স্বাস্থ্যবিধি নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ক্যাম্পাস, হলে বা ক্লাসে অবস্থানকালীন সময়ে সকলকে নাক-মুখ ঢেকে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে এবং সরকার নির্দেশিত অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। হলে বা ক্লাস কক্ষে প্রবেশের আগে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে বা স্যানিটাইজার দিয়ে হাত জীবানুমুক্ত করতে হবে। এছাড়া হল/বিভাগে প্রবেশের সময় শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হবে। যেকোনো শিক্ষার্থীর কোভিড-১৯ এর লক্ষণ দেখা দিলে অতি দ্রুত হল/বিভাগ কর্তৃপক্ষকে অথবা বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসা কেন্দ্রকে অবহিত করতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নমুনা সংগ্রহ এবং অ্যান্টিজেন অথবা আরটিপিসিআর টেস্টের ব্যবস্থা করবে।

হলে অবস্থানকালে কোনো শিক্ষার্থীর কোভিড-১৯ এর লক্ষণ দেখা দিলে তাকে হলে অথবা বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসা কেন্দ্রে আইসোলেশন কক্ষে পৃথক রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ডেঙ্গু প্রতিরোধে সকলকে আবশ্যিকভাবে মশারি টানিয়ে ঘুমাতে হবে। ক্যাম্পাসে কোভিড-১৯ ও ডেঙ্গু প্রতিরোধে জনসচেতনতা সৃষ্টির কার্যক্রম চলমান থাকবে।

বুথে টিকা প্রদানের বিষয়ে জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক প্রফেসর ড. আজিজুর রহমান ক্যাম্পাস লাইভকে বলেন,' প্রথম ডোজের ক্ষেত্রে স্টকে সিনোফার্ম আছে আপতত ওটাই দেয়া হবে। দ্বিতীয় ডোজের ক্ষেত্রে যে যে ধরনের টিকা গ্রহণ করেছে তার তথ্য পেলে আমরা সেভাবেই দিবো।'

শিক্ষার্থীদের হলে বরণ করে নিতে হল প্রশাসন প্রস্তুত রয়েছে বলে জানান শহীদ শামসুজ্জোহা হলের প্রভোস্ট ও প্রভোস্ট কাউন্সিলের আহ্বায়ক প্রফেসর ড. জুলকার নাইন। তিনি ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, 'আমরা শিক্ষার্থীদের বরণ করতে প্রস্তুত। ইতিমধ্যে প্রায় সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। আগামীকাল সকাল ১০টা থেকে ওদের হলে প্রবেশ করানো হবে। হলে প্রবেশের ক্ষেতে শিক্ষার্থীদের অবশ্যই টিকা গ্রহণের কপি দেখাতে হবে এবং আবাসিকতার কার্ড লাগবে। নাহলে তারা হলে প্রবেশ করতে পারবেনা।'

ঢাকা, ১৬ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এআইটি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।