দেশব্যাপী সাম্প্রদায়িক হামলা, রাবিতে প্রতিবাদ


Published: 2021-10-18 16:15:10 BdST, Updated: 2021-12-02 22:49:16 BdST

রাবি লাইভ: দেশব্যাপী হিন্দু সম্প্রদায়ের পূজা মণ্ডপ,মন্দির ও বাড়ি-ঘরে হামলা এবং লুটপাটের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট-বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর নেতাকর্মীরা।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে তিন দফা দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত এবং খুব দ্রুত হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানায় তারা।

এসময় তারা বিক্ষোভ মিছিলে প্ল্যাকার্ড হাতে সাম্প্রদায়িক হামলা রুখে দাঁড়াও, ধর্মভিত্তিক রাজনীতি আইন করে নিষিদ্ধ করো, উস্কানিদাতাদের গ্রেফতার ও বিচার কর এসব স্লোগান দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রধান সড়কগুলো পদক্ষিণ শেষে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের পেছনে এসে মিলিত হয়।

তিন দফা দাবি গুলো হলো:

দেশব্যাপী হিন্দু সম্প্রদায়ের পূজা মণ্ডপ, মন্দির ও বাড়ি-ঘরে হামলা এবং লুটপাটের সাথে জড়িত সকলকে গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় আনা, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ এবং ধর্মভিত্তিক রাজনীতি আইন করে নিষিদ্ধ করা।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, 'গতকাল রংপুর, এরপূর্বে নোয়াখালী ফেনীসহ সারাদেশে হামলা কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনা বি নয়। ধর্মের অনুভূতি নিয়ে যারা রাজনীতি করে তারাই এসব কাজ করে, তারা, শাসন ও শোষণ চালালোর জন্য এসব করে।'

মানববন্ধন

 

বক্তারা আরো বলেন, 'গতকাল রংপুরে হিন্দু সম্প্রদায়গুলোর বাড়ীতে যে হামলা ঘটনা ঘটলো সেইসময় সরকারের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা রয়েছে। তাদের স্বদিচ্ছা থাকলে এ ঘটনার প্রতিরোধ করতে পারত। সরকার ও প্রশাসন মানুষের নিরাপত্তা দিতে পারেনা। আমরা সরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের পদত্যাগ চাই। সেইসাথে এসকল ঘটনায় যারা জড়িতদের গ্রেফতার করে অনতিবিলম্বে বিচারের আওতায় আনতে হবে।'

উল্লেখ্য, গতকাল (১৭ অক্টোবর) রাত ৯টায় রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের করিমপুর গ্রামের মাঝিপাড়ায় ফেসবুক পোস্টে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে হিন্দুপল্লীতে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, গতকাল রোববার দুপুরের দিকে মাঝিপাড়ার এক তরুণের নামে ফেসবুকে একটি আইডি থেকে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ ওঠে। এরপর বিকেলে মাঝিপাড়ায় হামলা করে একদল দুর্বৃত্ত। হামলাকারীরা একটি মন্দিরসহ ৬৫টি বাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। পরে রাতে তারা অন্তত ২০টি বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুন নেভাতে পীরগঞ্জ ও মিঠাপুর ফায়ার ব্রিগেডের দুটি ইউনিট কাজ করে।

এরপূর্বে, দুর্গাপূজার মধ্যে গত ১৩ অক্টোবর কুমিল্লা শহরের একটি মন্দিরে ‘কুরআন অবমাননার’ অভিযোগ তুলে কয়েকটি মন্দিরে হামলা-ভাঙচুর চালানো হয়। এরপর চাঁদপুর, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, ফেনীসহ কয়েকটি জেলায় মন্দিরে হামলা হয়, তাতে নিহত হয় অন্তত ছয়জন।

ঢাকা, ১৮ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//ওএফ//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।