এ দায় কার?খাবার আর আলো-বাতাসের অভাবে ৫০০ পশুপাখির মৃত্যু


Published: 2021-07-31 07:23:29 BdST, Updated: 2021-11-27 17:25:28 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: যেন মৃত্যুর ফাঁদ। লতডাউনের কারণে মানুষের মতো পশুপাখিরাও সমস্যায় পড়েছে। তারাও খাবার, আলো বাতাস আর রোগে সোগে ভোগছে। কোন কোন প্রাণী ঢলে পড়েছে মৃত্যুর কোলে। এমনি লকডাউন যেন মৃত্যু ফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে কাঁটাবনের পশুপাখিদের জন্য। দোকান বন্ধ থাকায় পর্যাপ্ত আলো, বাতাস আর খাবারের অভাবে এরই মধ্যে মারা গেছে প্রায় ৫শ’ পশুপাখি। খাঁচাবন্দী এসব প্রাণীর মৃত্যুর জন্য ব্যবসায়ীদের অমানবিক আচরণকে দুষছেন পরিবেশবাদীরা।

কাঁটাবনের রাস্তা দিয়ে গেলেই, অবুঝ প্রাণীগুলোর আর্তনাদে, যে কারও হৃদয় দুমড়ে-মুচড়ে যাবে। একে তো খাঁচায় বন্দী, তার ওপর দোকান বন্ধ। অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে, প্রতিটা মুহূর্ত কাটে অন্ধকারে। অন্যসময় উচ্চমূল্যে বিক্রির জন্য মনিবের কাছে বিশেষ কদর থাকলেও দু:সময়ে কেউ খোঁজও রাখে না। দিনের পর দিন আলো, বাতাস, খাবার না পেয়ে মৃত্যুই যেন শেষ ঠিকানা হলো।

কাঁটাবন বিশ্বদ্যিালয় মার্কেট

 

এদিকে বন্ধ দোকান খুলতেই অবলা কুকুরটির আত্মচিৎকারই জানান দিচ্ছে অন্ধকার জীবনের পাশাপাশি ক্ষুধার যন্ত্রণা কতটা কষ্টের। নিস্তেজ শরীরে কেবলই বাঁচার আশা।
অভুক্ত থাকায় খাঁচায় বন্দী ছোট্ট পাখিটিও বড্ড ক্লান্ত, মাথা তোলার ক্ষমতা নেই। পাশ থেকে সঙ্গী পাখি দুটি অভয় দিচ্ছে অনবরত।

একই চিত্র রাজধানীর বৃহত্তম পোষা প্রাণীর মার্কেট কাঁটাবনের অন্যান্য দোকানেও। নিয়মিত খাবার না দিয়ে চরম নিষ্ঠুরতার পরিচয় দিচ্ছে পোষা প্রাণী বিক্রেতারা। প্রাণী বিক্রেতারা বলেন, আমরা নিজেরা না খেলেও পশুপাখিকে খাবার দিচ্ছি। লকডাউনে দোকান না খুলার কারণে অনেকগুলো পাখি মারা গেছে। এক বেলায় যদি তিন বেলার খাবার দেওয়া হয় তা হলে পশুপাখি অসুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা আরও বেশি থাকে।

কঠোর লকডাউনে মানবিক দিক বিবেচনায় পশুপাখিদের যত্ন নিতে সকাল-বিকেল দুই ঘণ্টা করে সময় বেঁধে দেয় মন্ত্রণালয়। তবে এমন সিদ্ধান্ত খুব একটা কাজে আসবে না বলে জানায় মার্কেট কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেট মালিক সমিতির সভাপতি আতিয়ার রহমান রিপন বলেন, বর্তমানে আমাদের যে সময় দেওয়া হয়েছে এই সময়ে আসলে পশুপাখি এবং অ্যাকোরিয়ামের জন্য যথেষ্ট নয়।

অ্যানিম্যাল কেয়ার ট্রাস্টের প্রতিষ্ঠাতা আফজাল খান (রবিনহুড) বলেন, মানুষের মতো পশুপাখিদেরও দীর্ঘ সময় আবদ্ধ থাকা সম্ভব নয়। অবলা প্রাণীদের মৃত্যুর দায় দোকান মালিকরা কোনোভাবেই এড়াতে পারে না। অসহায় প্রাণীগুলো যাতে অবহেলার শিকার না হয়, সেজন্য বিকল্প ব্যবস্থা নেয়ার দাবি পরিবেশবাদীদের। এ ব্যাপারে সরকার কি পদক্ষেপ নেয় তা ভাবনার বিষয় হয়ে দাড়িঁয়েছে বললেন ব্যবসায়ীরা।

ঢাকা, ৩১ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এবিএম

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।